চট্টগ্রাম, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪ , ৬ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মা ও শিশু হাসপাতাল সেবা খাতের একটি উজ্বল দৃষ্ঠান্ত: ডাঃ এমএ ফয়েজ

প্রকাশ: ৯ জুন, ২০২৪ ১১:১১ : পূর্বাহ্ণ

 

চট্টগ্রাম নগরীর আগ্রাবাদস্থ ‘মা ও শিশু হাসপাতাল মেডিকেল কলেজের ২০২৩-২০২৪ শিক্ষাবর্ষের ১৯ তম ব্যাচের এমবিবিএস কোর্সের ওরিয়েন্টেশন প্রোগ্রামে নবীন ছাত্র ছাত্রীদেরকে কর্মপ্রিয়, নীতিজ্ঞান সম্পন্ন আদর্শ চিকিৎসক হওয়ার পাশাপাশি মানব সেবায় নিবেদিত প্রান হওয়ার আহ্বান জানানো হয়।

গত (বুধবার) সকাল ১০ টার সময় কলেজ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত ওরিয়েন্টেশন প্রোগ্রামে সভাপতিত্ব করেন চমাশিহা মেডিকেল কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডাঃ অসীম কুমার বড়ুয়া।

পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত, গীতা পাঠের ও জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মাধ্যমে শুরু হওয়া ফিজিওলজি ও এনাটমী বিভাগের প্রভাষক ডাঃ তাসপিয়া সাবা ও ডাঃ সানজিদা চৌধুরীর প্রানবন্ত নান্দনিক সঞ্চালনায় ওরিয়েন্টেশন প্রোগ্রামে প্রধান অথিতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ঢাকা মেডিকেল কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিসিন অনুষদের সাবেক ডিন ও গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের প্রাক্তন মহাপরিচালক অধ্যাপক ডাঃ এম এ ফয়েজ।

বিশেষ অথিতি ছিলেন, চমাশিহা ট্রাস্টি বোর্ডের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান চসিক স্বাধিনতা পুরুস্কার প্রাপ্ত সমাজসেবক লায়ন আলহাজ্ব এস এম মোরশেদ হোসাইন, ম্যানেজিং ট্রাস্টি ও কলেজ পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান মোঃ রেজাউল করিম আজাদ, ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান রানা, ট্রেজারার অধ্যক্ষ লায়ন ডঃ মোঃ সানাউল্লাহ, জয়েন ট্রেজারার লায়ন এস এম কুতুব উদ্দিন, স্পোর্টস এন্ড কালচারাল সেক্রেটারী আলহাজ্ব মোঃ আহসান উল্লাহ ও ট্রাস্টি বোর্ড সদস্য এস এম জাফর।

আরো বক্তব্য রাখেন, ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য অধ্যাপক ডাঃ জাহিদ হোসেন শরীফ, কলেজের উপদেস্টা অধ্যাপক ডাঃ এ এস এম মোস্তাক আহামদ এবং হাসপাতালের পরিচালক(প্রশাসন) ডাঃ মোঃ নুরুল হক।

প্রধান অথিতির বক্তব্যে ডাঃ ফয়েজ বলেন, চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতাল সেবা খাতে বেসরকারী খাতের অংশ গ্রহণের একটি উজ্বল দৃষ্ঠান্ত। পর্যায় ক্রমে তিলে তিলে গড়ে উঠা জনহিতকর এই প্রতিষ্ঠান চিকিৎসা সেবা, চিকিৎসা শিক্ষা ও দক্ষ নার্স তৈরীর ক্ষেত্রে এতদঞ্চলের মানুষের আশা আকাঙ্খার প্রতিক। দেশ বিদেশে অত্র মেডিকেল কলেজের নাম ব্যাপকভাবে সমাদৃত হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, সফলতার সতের বছর অতিক্রম করেছে এ কলেজ। প্রতিষ্ঠানের উন্নয়নের জন্য যারা নিরলস ও নিঃস্বার্থভাবে কাজ করে প্রয়াত হয়েছেন, তাঁদের কৃতজ্ঞতা সহ স্মরন করেন বক্তারা। মেডিকেল শিক্ষা একটি কঠিন বিষয়, কঠোর নিয়মানুবর্তিতার মধ্য দিয়ে মেডিকেল শিক্ষার সময় অতিবাহিত করতে হয়। সাফল্যের স্বীকৃতিতে অভিষিক্ত চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতাল মেডিকেল কলেজ।’

এতে বক্তারা ভর্তিকৃত নতুন ছাত্র ছাত্রীদের উদ্দেশ্যে বলেন, চিকিৎসা শিক্ষা অর্জন করে চিকিৎসা সেবার মাধ্যমে মানুষের কল্যাণে কাজ করতে হবে। মানুষের মুখে হাসি ফুটাতে হবে- এ সিদ্ধান্তে অটল থাকতে হবে। অভিভাবকদের একটু সচেতন এবং শিক্ষার্থীদের আন্তরিকতা থাকলে মেডিকেল শিক্ষা সহজতর হয় বলেও মন্তব্য করেন বক্তারা।

অনুষ্ঠানে শিক্ষক শিক্ষিকাবৃন্দের পক্ষে বক্তব্য রাখেন, ফেইজ-১ এর কো-অর্ডিনেটর এবং ফিজিওলজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডাঃ শাহেদা খানম, ফেইজ-২ এর কো-অর্ডিনেটর এবং ফার্মাকোলজী বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডাঃ রোজিনা হক, ফেইজ-৩ এর কো-অর্ডিনেটর (নতুন কারিকুলাম) ও কমিউনিটি মেডিসিন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান এবং কলেজ বার্ষিকি “দর্পন”- এর সম্পাদক অধ্যাপক ডাঃ মোঃ জালাল উদ্দিন, মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডাঃ নাহিদা সুলতানা, ফেইজ-৪ এর কো-অর্ডিনেটর নাক, কান, গলা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডাঃ আব্দুল কাইয়ুম চৌধুরী, মেডিসিন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান এবং একাডেমিক কো-অর্ডিনেটর অধ্যাপক ডাঃ অনুপম বড়ুয়া।

এছাড়া অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের পক্ষে ওয়ায়িজ উল্লাহ, উসওয়াত উন হাসনা এবং অভিভাবকদের পক্ষে আবু নাসের চৌধুরী ও মিঃ রতন চক্রবর্তি বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে কলেজের প্রি-ক্লিনিক্যাল, প্যারা ক্লিনিক্যাল এবং ক্লিনিক্যাল বিভাগের অধ্যাপকবৃন্দও উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানের শুরুতে কলেজ বার্ষিকি ” দর্পন”- এর মোড়ক উম্মোচন করা হয়।

Print Friendly and PDF