চট্টগ্রাম, সোমবার, ২০ মে ২০২৪ , ৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জিম্বাবুয়েকে ৫ রানে হারাল বাংলাদেশ

প্রকাশ: ১১ মে, ২০২৪ ৩:০০ : অপরাহ্ণ

 

পাঁচ ম্যাচ সিরিজের চতুর্থ টি-টোয়েন্টিতে সফরকারী জিম্বাবুয়েকে ৫ রানে হারিয়েছে টাইগাররা। শুক্রবার (১০ মে) শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আগে ব্যাট করে জিম্বাবুয়েকে ১৪৩ রানের টার্গেট দেয় বাংলাদেশ। জবাবে ১৩৮ রানে অলআউট হয় সিকান্দার রাজার দল।

নির্ধারিত রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতেই হোঁচট খায় জিম্বাবুয়ে। প্রথম ওভারের চতুর্থ বলে রানের খাতা না খুলতেই ওপেনার ব্রায়ান বেনেটকে শূন্যরানে সাজঘরে ফেরান পেসার তাসকিন আহমেদ। ক্রিজে আসেন অধিনায়ক সিকান্দার রাজা। তাদিওয়ানাশে মারুমনিকে সাথে নিয়ে নতুন জুটি গড়েন রাজা। কিন্তু সেটিও বেশিদূর গড়ায়নি। দলীয় ২৮ রানে তাসকিনের দ্বিতীয় শিকারে পরিণত হয়ে সাজঘরে ফেরেন তিনি। আউট হবার আগে করেন ১০ বলে ১৭ রান। পরের ওভারেই সাকিবের এলবিডব্লিউয়ের ফাঁদে পড়েন মারুমনি। ১৮ বল খেলে ১২ রান করে আউট হন ক্লাইভ মাদান্দে। রিশাদ হোসেনের বলে তিনিও মারুমনির মতো লেগ বিফোরে আটকে যান। ৫৭ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে রোডেশিয়ানরা।

 

এরপর ক্যাম্পবেলকে নিয়ে ৩৫ রানের জুটি গড়ে সাময়িকভাবে পরিস্থিতি সামাল দেন বার্ল। ১৯ রান করে প্যাভিলিয়নে ফেরেন তিনি। বার্ল ফিরে যাবার পর কিছুক্ষণ পর আউট হন জঙ্গুয়ে। একপ্রান্ত আগলে রাখা ক্যাম্পবেলকে ফেরান সাকিব। নাজমুল শান্তর হাতে ক্যাচ দিয়ে ৩১ রান করে ফিরে যান তিনি। এরপর ওয়েলিংটন মাসাকাদজার সাথে ২৫ রান্বের জুটি গড়েন ফারাজ আকরাম। কিন্তু সেটিও ইনিংসের শেষ ওভারে পৌঁছাতে ব্যর্থ। শেষ পর্যন্ত ইনিংসের শেষ ওভারের চতুর্থ বলে ১৩৮ রানে শেষ হয় জিম্বাবুয়ের ইনিংস।

বাংলাদেশের পক্ষে ৪টি উইকেট তুলে নেন সাকিব আল হাসান। এছাড়া ৩টি উইকেট পান মো¯াফিজুর রহমান। ২টি উইকেট তুলে নেন তাসকিন।

 

এর আগে, দুই ওপেনার তামিম-সৌম্য শতরানের জুটি গড়লে ভালো সংগ্রহের পথে এগোয় টাইগাররা। কিন্তু তার পরেই ছন্দপতন। ম্যাচের ১১তম ওভারের শেষ বলে সৌম্য সরকার সিঙ্গেল নিলে বিনা উইকেটে শতরানের সংগ্রহে পৌঁছায় টাইগাররা। পরের ওভারেই লুক জঙ্গুয়ের বলে জোনাথন ক্যাম্পবেলের তালুবন্দি হয়ে সাজঘরে ফেরেন তানজিদ হাসান তামিম। আউট হবার আগে তামিম করেন ৩৮ বলে ৫৩ রান। কিছুক্ষণ পর আউট হন সৌম্য সরকারও। ৩৪ বলে ৪১ রান করে জঙ্গুয়ের দ্বিতীয় শিকার হয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন তিনি।

 

দুই ওপেনার ফিরে গেলে ক্রিজে আসেন তাওহিদ হৃদয়। কিন্তু ৮ বলে মাত্র ১২ রান করে সাজঘরে ফেরেন তিনি। সিকান্দার রাজার বলে ব্রায়ান বেনেটের হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে বিদায় নেন তিনি। দীর্ঘদিন পর দলে ফেরা বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের ব্যাট হাসেনি আজকের ম্যাচে। ৩ বল খেলে মাত্র ১ রান করে বেনেটের শিকারে পরিনত হন তিনি। অধিনায়ক নাজমুল হাসান শান্ত ২ রানে বোল্ড হয়ে বেনেটের দ্বিতীয় শিকারে সাজঘরের পথ ধরেন।

 

বিনা উইকেটে শতরানে পৌঁছানো টাইগাররা ১২৩ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে এক পর্যায়ে ব্যাকফুটে চলে যায়। তারপর একে একে বিদায় নেন জাকের আলী, তাসকিন আহমেদ, রিশাদ হাসান, তানজিম হাসান সাকিব ও মোস্তাফিজুর রহমান। ৭ ব্যাটার আউট জন এক অঙ্কের রানে।

জিম্বাবুয়ের পক্ষে ২০ রানের বিনিময়ে ৩টি উইকেট তুলে নেন লুক জঙ্গুয়ে। এছাড়া ২টি করে উইকেট পান রিচার্ড নাগারভা ও ব্রায়ান বেনেট। ১টি করে উইকেট পান দলটির অধিনায়ক সিকান্দার রাজা ও ব্লেসিং মুজারাবানি।

উল্লেখ্য, রোববার সিরিজের পঞ্চম ও শেষ ম্যাচে মাঠে নামবে দুদল। ম্যাচটি শুরু হবে সকাল ১০টায়। চার ম্যাচ শেষে ৪-০ তে এগিয়ে নাজমুল হাসান শান্তর দল।

 

Print Friendly and PDF