চট্টগ্রাম, সোমবার, ২০ মে ২০২৪ , ৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দ্বীপচরতী কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে রমজান মাস জুড়ে চলছে ওয়াজ ও শত রোজাদারের ইফতার

প্রকাশ: ৭ এপ্রিল, ২০২৪ ৩:১৫ : অপরাহ্ণ

আরাফাত মজুমদার,চট্টগ্রাম:  মসজিদের বারান্দায় সারিবদ্ধভাবে বসে আছেন অগণিত মানুষ। একসঙ্গে ইফতারে বসার ক্ষেত্রে ধনী-গরিবে নেই কোনো ভেদাভেদ। পুরো রমজান মাসজুড়েই ইফতারের সময় নিত্যদিনের চিত্র এটি।

প্রতিদিন শত শত মানুষ আসেন গণ-ইফতারে অংশ নিতে। এতো মানুষের সঙ্গে একত্রে ইফতারে অংশ নিতে পারা অনেকেই ভাগ্য মনে করেন। বলছিলাম দক্ষিন চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলার চরতি ইউনিয়নের দ্বীপচরতী কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ এর কথা। রমজান মাসজুড়ে প্রতিদিন ২শতাধিক মানুষ এখানে ইফতারে অংশ নেন।

দ্বীপচরতী দক্ষিণ পাড়ার তরুন প্রজন্ম ও প্রবাসীদের উদ্যোগে করা হয় সুবিশাল এ ইফতারের আয়োজন। সারি সারি প্লেটে রাখা ইফতারি সামনে নিয়ে বসে আছেন ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা। এসব ইফতার সামগ্রীর মধ্যে রয়েছে খেজুর, শরবত,ছোলা মুড়ি,জিলাপি, বেগুনি,খিচুড়ি ইত্যাদি।

আয়োজকরা জানান,বিশাল  এ কর্মযজ্ঞ সামাল দিতে এবং ইফতার বণ্টন কাজে নিয়োজিত আছেন ২০ জনের অধিক স্বেচ্ছাসেবক। প্রতিদিন যোহরের নামাজের পর থেকেই মাইকে পেশ করা হয় ইসলামী মাসআলা-মাসায়েল সম্পর্কিত ওয়াজ। ইসলামিক আলোচনার জন্য প্রতিদিন আমন্ত্রন করা হয় স্বনামধন্য ইসলামিক আলোচকদের। ইফতারের পূর্বে রোজাদারের সম্মিলিত মুনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।

আয়োজকদের একজন এইচএম আবদুল্লাহ সিটিজিটাইমস কে বলেন, রমজানে ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সবাই ইফতার ভাগাভাগি করে। রোজাদারকে ইফতার করালে একটি পূর্ণ রোজার সওয়াব হয় এ বিশ্বাসে অনেকেই অন্যদের জন্য ইফতারির ব্যবস্থা করেন। পাড়া-প্রতিবেশীদের মধ্যে ইফতার বিতরণ করা, মসজিদে মসজিদে ইফতার মাহফিলের আয়োজন ছাড়াও পথে পথে অনেক স্বেচ্ছাসেবক বিনামূল্যে বিতরণ করেন ইফতারি। এটা মুসলিম ইতিহ্য ও সংস্কৃতি।আমরা ইসলামের সৌন্দর্য্য তুলে ধরতে এবং অন্যদের মাঝে ছড়িয়ে দিতে এ বছর থেকে পুরো রমজান মাসজুড়ে এলাকার তরুন প্রজন্ম এবং প্রবাসী ভাইদের উদ্যোগে এ ইফতার মাহফিল এর আয়োজন করেছি। প্রতিবছর এমন আয়োজন করার চেষ্টা চালিয়ে যাবো ইনশাল্লাহ।

Print Friendly and PDF