চট্টগ্রাম, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪ , ৩রা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঢাকা শিল্পকলায় সেলিম ভূঁইয়ার একক আবৃত্তি সন্ধ্যা এসো হাত ধরি কবিতার

প্রকাশ: ২১ মার্চ, ২০২৪ ৭:২৬ : অপরাহ্ণ

 

“অপসংস্কৃতির যুগে দেশীয় সংস্কৃতির চর্চায়” স্লোগানে স্বদেশ আবৃত্তি সংগঠন’র ১০ বছর পদার্পণ উপলক্ষে স্বদেশ আবৃত্তি সংগঠনের আয়োজনে ঢাকা সেগুনবাগিচার বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা মিলনায়তনে গতকাল ৯ মার্চ শনিবার, সন্ধ্যা ৬টায় সেলিম ভূঁইয়ার একক আবৃতি সন্ধ্যা এসো হাত ধরি কবিতার আয়োজন সম্পন্ন হয়েছে।

 

এতে উদ্বোধক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বাধীনতা প্রদকপ্রাপ্ত আবৃত্তি শিল্পী স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রীয় শব্দ সৈনিক ও বাচিক শিল্পের প্রশিক্ষক আশরাফুল আলম, প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় এন বি ই আর জিও পলিটিকাল ইকোনোমিস্টের চেয়ারম্যান, ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান, স্বদেশ আবৃত্তি সংগঠনের উপদেষ্টা পরিষদের চেয়ারম্যান প্রফেসর আহসানুল আলম পারভেজ, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) কবি মালেক মুস্তাকিন, সংবর্ধিত অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ বেতার ঢাকা ও আবৃত্তিশিল্পী উপস্থাপক শামীম আহমেদ নিজস্ব। প্রধান অতিথি প্রফেসর পারভেজ তার বক্তব্যে বলেন, আমার কবিতা মাটি ও মানুষের কবিতা। কবি তার কথা, তার ভাবনা, ভালোবাসার অনুভূতি প্রকাশ করে এ সমাজের মানুষদের জাগানোর চেষ্টা করে থাকে। তিনি আরো বলেন কবিতার মাধ্যমে শুধু বন্দনা না করে মাটি ও মানুষের কবিতা লেখার আহবান জানান। ত্রিলোক বাচিকশিল্প চর্চা কেন্দ্রের সভাপতি মাসুম আজিজুল বাসারের উপস্থাপনায় অন্যান্যদের মধ্যে ছিলেন সঙ্গীতে সঞ্জয় বণিক, কি—বোর্ড মাহবুবুল আলম সোহেল, তবলায় অভিজিৎ সাহা সাগর, বাঁশিতে উত্তম কুমার চক্রবর্তী।

 

 

আবহ সংগীতে স্বরাজ সাহা ও দ্বৈত কবিতায় কান্তা আরেফিন সহযোগিতা করেন। অনুষ্ঠানটির সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন মাসুদ রানা ও মেহেদী হাসান আকাশ। সেলিম ভূঁইয়া অনুষ্ঠানে প্রায় ৫০টি ছড়া— কবিতা আবৃত্তি করেন। সেগুলো হলে—মাযহারুল ইসলাম — আমি মুজিবের কাছে, মালেক মুস্তাকিনের —একুশ ফিরে আসে, মুরালি মোহন সেনের শাসন, আব্দুল কাদের আরাফাতের ফ্রেন্ডস রিকোয়েস্ট, মাহবুবুল উল আলম চৌধরীর কাঁদতে আসিনি ফাঁসির দাবি নিয়ে এসেছি, সৈয়দ শামসুল হকের নুরুলদীনের সারা জীবন , শামসুর রাহমানের তোমাকে পাওয়ার জন্য হে স্বাধীনতা, প্রতুল মুখোপাধ্যায়ের আমি বাংলায় গান গাই, নির্মলেন্দু গুণের স্বাধীনতা এ শব্দটি কিভাবে আমাদের হলো ও মাত্রাভঙ্গ, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের নির্ঝরের স্বপ্নভঙ্গ ও প্রশ্ন, কাজী নজরুল ইসলামের মানুষ, খুকি ও কাঠ বিড়ালী, জীবনানন্দ দাশের অন্ধকার, সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের কবির মৃত্যু, জসিম উদ্দিনের প্রতিদান, পুর্ণেন্দু পত্রীর সোনার ম্যাডেল, আসাদ চৌধুরীর তখন সত্যি মানুষ ছিলাম, হেলাল হাফিজের ফেরিওয়ালা, মুহাম্মদ নুরুল হুদা টুঙ্গী পাড়ার খোকা বাবু, শুভ দাশগুপ্তের জন্মদিন, আনিসুল হকের মানুষ জাগবে ফের, সুকান্ত ভট্টাচার্যের, একটি মোরগের কাহিনী, লুৎফর রহমান রিটন — বন্ধু মানে, ড. মুহাম্মদ সামাদের মুজিব, আবু জাফর ওবায়দুল্লাহ কোন এক মাকে, সরল দে’র মশা, সুকুমার বড়ুয়ার এমন যদি হত ও ঠিক আছে, সুকুমার রায়ের জীবনের হিসাব, রূপক চট্টরাজের সহজ উপায়, রজনী কান্ত সেনের বাবুই পাখিরে ডাকি, আলী হাবিবের টম এন্ড জেরী, চঞ্চল চৌধুরীর এক ডেগ পানি (নোয়াখালীর আঞ্চলিক কবিতা), অনিন্দ্য বড়ুয়ার গোডা চোলা খাঁইয়া (চট্টগ্রামের আঞ্চলিক কবিতা), ওমর কায়সারের মজা গড়ি ডুবাই খা (চট্টগ্রামের আঞ্চলিক কবিতা), অজ্ঞাত — যৌতুক প্রথা (চট্টগ্রামের আঞ্চলিক কবিতা), মদন মোহন তর্কালঙ্কারের আমার পন, আতোয়ার রহমানের ঠিকানা, পাশা মোস্তফা কামাল’র আদর্শ ছেলে, রুদ্র মুহাম্মদ শহীদুলাহ’র বাতাসে লাশের গন্ধ, আলাউদ্দিন ফরহাদের রং নাম্বারে কিছুক্ষণ ।

 

উপস্থিত থেকে অনুষ্ঠানটি সফল করায় সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাাশ করেছে সংগঠনের সভাপতি ও একক আবৃত্তিশিপ্লী সেলিম ভূঁইয়া।

 

Print Friendly and PDF