চট্টগ্রাম, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ , ১৪ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

আজ থেকে শুরু হচ্ছে অমর একুশে বইমেলা

প্রকাশ: ১ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ ১১:৩০ : পূর্বাহ্ণ

 

আজ থেকে শুরু হচ্ছে, অমর একুশে বইমেলা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দুপুর ৩টায় মাসব্যাপী এ মেলার উদ্বোধন করবেন। এবারের বইমেলায় থাকছে ৬৩৫টি প্রতিষ্ঠানের মোট ৯৩৭টি স্টল। এবারের মেলার প্রতিপাদ্য ‘পড়ো বই, গড়ো দেশ: বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ।’ কোনো তৃতীয় মাধ্যম ছাড়াই এবারের বইমেলার সার্বিক দায়িত্বে আছে বাংলা একাডেমি।

বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক কবি মোহাম্মদ নুরুল হুদা বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামীকাল (আজ) বিকেল ৩টায় মেলার উদ্বোধন করবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

বাংলা একাডেমি মাঠে ১২০টি প্রতিষ্ঠানকে ১৭৩টি এবং সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ৫১৫টি প্রতিষ্ঠানকে ৭৬৪টি স্টল বরাদ্দ দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। এ বছর মোট ৩৭টি প্যাভিলিয়নও বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। গত বছর ৬০১টি প্রতিষ্ঠানের পক্ষে মোট ৯০১টি স্টল বরাদ্দ দেয়া হয়েছিল।

 

যে কোনো ধরণের সমালোচনা এড়াতে এ বছর বাংলা একাডেমি এককভাবে মেলার সমস্ত আয়োজন সম্পন্ন করেছে উল্লেখ করে অমর একুশে গ্রন্থমেলা কমিটির সদস্য সচিব ড. কে এম মুজাহিদুল ইসলাম বলেন, ‘আগামীকাল সকালের মধ্যে প্রায় ৯৫ শতাংশ কাজ শেষ হবে’। তিনি আরও বলেন, ‘আগের বছরগুলোতে কিছু ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি মেলার আয়োজনে জড়িত ছিল যার ফলে গত বছর কিছুটা সমালোচনার সম্মুখীন হয়েছিল।’

 

এদিকে মেলাকে ঘিরে সুনির্দিষ্ট কোনো হুমকি না থাকলেও, যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবেলায় প্রস্তুত রয়েছে, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। বুধবার (৩১ জানুয়ারি) রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে, মেলার প্রস্তুতি পরিদর্শন শেষে ব্রিফিংয়ে একথা বলেন ডিএমপি কমিশনার হাবিবুর রহমান।
তিনি বলেন, চলবে নিয়মিত রুটিন টহল। এছাড়া, মেলায় থাকছে ওয়াচ টাওয়ার ও কন্ট্রোল রুম। পাশাপাশি সোয়াট টিম ও বোম্ব স্কোয়াডের সদস্য ছাড়াও থাকবে ডগ স্কোয়াড।

রাষ্ট্রের ভাবমূর্তি নষ্ট ও সাম্প্রদায়িকতা উসকে দেয়, এমন বই যাতে প্রকাশিত না হয়, সে বিষয়ে নজরদারির কথাও বলেন ডিএমপি কমিশনার।

মেলায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও মাসব্যাপী সেমিনারের পাশাপাশি শিশু-কিশোরদের জন্য ছবি আঁকা, সংগীত ও আবৃত্তি প্রতিযোগিতার ব্যবস্থা থাকবে। প্রতি শুক্র ও শনিবার মেলায় বেলা ১১টা থেকে ১টা পর্যন্ত ‘শিশুপ্রহর’ থাকবে। প্রথমবারের মতো শিক্ষার্থীদের জন্য ৫ শতাংশ ছাড়ের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। পরিচয়পত্র দেখালেই মিলবে এ সুযোগ।

প্রতি কর্মদিবসে বইমেলা বিকেল ৩টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত এবং সরকারি ছুটির দিন বেলা ১১টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে এবং দুপুরের খাবার ও নামাজের জন্য এক ঘণ্টা বিরতি থাকবে মেলায়।

 

মেলার প্রবেশপথ
এবারের মেলায় প্রবেশদ্বার মোট চারটি। মেট্রোরেল স্টেশনের অবস্থানগত কারণে গতবারের মূল প্রবেশপথ এবার একটু সরিয়ে বাংলা একাডেমির মূল প্রবেশপথের উলটো দিকে অর্থাৎ মন্দির গেটটি মূল প্রবেশপথ হিসেবে ব্যবহার হবে। এছাড়া টিএসসি, দোয়েল চত্বর ও ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটের (আইইবি) দিকেসহ মোট ৩টি প্রবেশপথ থাকবে।

 

 

সুত্র: চ্যানেল২৪

Print Friendly and PDF