চট্টগ্রাম, বুধবার, ১২ জুন ২০২৪ , ২৯শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আপিল শুনানির ছয় দিনে প্রার্থিতা ফিরে পেলেন ২৮০ জন

প্রকাশ: ১৫ ডিসেম্বর, ২০২৩ ৭:১৪ : অপরাহ্ণ

 

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রিটার্নিং কর্মকর্তাদের দেয়া সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল করে ছয় দিনে ২৮০ জন প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছেন। শুক্রবার (১৫ ডিসেম্বর) ইসির আইন শাখার কর্মকর্তারা এই তথ্য জানিয়েছেন। এরমধ্যে শেষ দিনে প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছেন ২০ জন।

এদিন বরিশাল-৫ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ, ফরিদপুর-৩ আসনের আওয়ামী লীগের প্রার্থী শামীম হক ও বরিশাল-৪ আসনের আওয়ামী লীগের প্রার্থী শাম্মী আহম্মেদের প্রার্থিতা বাতিল হয়েছে। একই দিন নামঞ্জুর হয়েছে ৬২ জনের আপিল আবেদন।

এর আগে বৃহস্পতিবার (১৪ ডিসেম্বর) পঞ্চম দিনের শুনানিতে প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছিলেন ৪৪ জন। পাশাপাশি ৫২টি আবেদন নামঞ্জুর হয়েছিল এবং চারটি আবেদনের শুনানি পেন্ডিং রাখা হয়েছিল। আর একটি আপিল আবেদনের বাদী অনুপস্থিত ছিলেন।

তারও আগে বুধবার (১৩ ডিসেম্বর) চতুর্থ দিনে ৯৯ জনের আপিল শুনানিতে প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছিলেন ৪৫ জন। এদিন আপিল আবেদন নামঞ্জুর হয়েছিল ৫২ জনের। আর দুটি আবেদনের সিদ্ধান্ত হয়নি।

এছাড়া মঙ্গলবার (১২ ডিসেম্বর) তৃতীয় দিনে ৬১ জন, সোমবার (১১ ডিসেম্বর) দ্বিতীয় দিনে ৫১ জন এবং রোববার (১০ ডিসেম্বর) প্রথম দিনে ৫৬ জন প্রার্থিতা ফিরে পান। সবমিলিয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়ালের নেতৃত্বাধীন কমিশন গত ছয় দিনে মোট ২৭৭ জন প্রার্থীর প্রার্থিতা ফিরিয়ে দেন।

ইসির অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ জানিয়েছেন, ৩০০ আসনে মনোনয়নপত্র দাখিল হয়েছিল দুই হাজার ৭১৬টি। এরমধ্যে বাছাইয়ের সময় রিটার্নিং কর্মকর্তারা বাতিল করেছেন ৭৩১টি, যা মোট দাখিলকৃত মনোনয়নপত্রের ২৬ দশমিক ৯২ শতাংশ বা ২৭ শতাংশ। আর বৈধ হয়েছে এক হাজার ৯৮৫টি মনোনয়নপত্র, যা দাখিলকৃত মনোনয়নপত্রের ৭৩ দশমিক ০৮ শতাংশ বা ৭৩ শতাংশ।

রিটার্নিং কর্মকর্তার সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ৫৬১টি আপিল আবেদন জমা পড়েছিল। গত ছয় দিনে আপিল আবেদনগুলোর শুনানি সম্পন্ন করল ইসি। তবে ইসির রায়ে কেউ সন্তুষ্ট না হলে হাইকোর্টে আপিল করতে পারবেন।

উল্লেখ্য, নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, ১৭ ডিসেম্বর পর্যন্ত প্রার্থিতা প্রত্যাহারের সময় রয়েছে। পরদিন ১৮ ডিসেম্বর প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হবে। সবশেষ আগামী ৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে ভোটগ্রহণ।

 

 

Print Friendly and PDF