চট্টগ্রাম, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ , ১৪ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

নবম দফায় দেশব্যাপী ৪৮ ঘণ্টার অবরোধ শুরু

প্রকাশ: ৩ ডিসেম্বর, ২০২৩ ১০:০৫ : পূর্বাহ্ণ

 

নবম দফায় সারাদেশে বিএনপি ও সমমনা দলগুলোর ডাকা ৪৮ ঘণ্টার সর্বাত্মক অবরোধ কর্মসূচি শুরু হয়েছে। রোববার (৩ ডিসেম্বর) ভোর ৬টা থেকে শুরু হওয়া এ কর্মসূচি চলবে মঙ্গলবার (৫ ডিসেম্বর) ভোর ৬টা পর্যন্ত। গত বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) বিকেলে এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে সর্বাত্মক অবরোধের এই দফার কর্মসূচি ঘোষণা করেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

যুগপৎ আন্দোলনের ধারাবাহিক কর্মসূচি হিসেবে সড়ক, নৌ ও রেলপথ অবরোধ সফল করার জন্য দলের নেতাকর্মী ছাড়াও দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছে দলটি। তবে রাজনৈতিক কর্মসূচি ঘিরে যেকোনো ধরনের নাশকতা প্রতিহত করতে শক্ত অবস্থানে রয়েছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

সরকারের পদত্যাগের দাবিতে বিএনপির ডাকা নবম দফার এই অবরোধ কর্মসূচি সফল করতে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে মশাল মিছিল করেছে বিএনপি। শনিবার (২ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় আগারগাঁও থেকে ওই মিছিল শুরু হয়ে শেওড়াপাড়ায় গিয়ে শেষ হয়। এতে নেতৃত্ব দেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

 

এ সময় রিজভী বলেন, ‘দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত বিএনপির আন্দোলন চলবে। দেশের বেশিরভাগ জনপ্রিয় রাজনৈতিক দল সরকারের বিরুদ্ধে। তারা নির্বাচন বর্জন করেছে। নির্দলীয়, নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি আদায় করেই তারা নির্বাচনে যাবে।’

বিএনপির জ্যেষ্ঠ এ যুগ্ম মহাসচিব বলেন, ‘চারদিক থেকে সরকারের বিরুদ্ধে যেভাবে লাল নোটিশ আসছে, জনগণ যেভাবে জেগে উঠেছে তাতে বিজয়ের মাসেই সরকারের পতন ঘটবে। দেশ বাঁচাতে হলে সরকারের পতন ছাড়া কোনো বিকল্প নেই।’

এদিকে, নবম দফার এই অবরোধ শুরুর আগের রাতে রাজধানীতে তিনটি বাসে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। শনিবার (২ ডিসেম্বর) রাতে এসব আগুনের খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে দ্রুত আগুন নেভান।

ফায়ার সার্ভিস জানায়, অবরোধের আগের রাতে আগারগাঁওয়ে ভুঁইয়া পরিবহন, গাবতলীতে পদ্মা লাইন ও সায়েদাবাদে গুলিস্তান-ডেমরা রুটে চলাচলকারী বাসে আগুন দেয়া হয়। এর আগে বুধবার (২৯ নভেম্বর) সকাল ৬টা থেকে বৃহস্পতিবার সকাল ৬টা পর্যন্ত বিএনপি-জামায়াত ও সমমনা দলগুলোর ডাকা অষ্টম দফার ২৪ ঘণ্টার অবরোধ শেষ হয়।

 

Print Friendly and PDF