চট্টগ্রাম, রোববার, ১৪ জুলাই ২০২৪ , ৩০শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মৃত্যু পর্যন্ত আমার এলাকার উন্নয়ন জন্য কাজ করে যাবো: মীর মোশারফ হোসেন

প্রকাশ: ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২৩ ১০:৫৮ : পূর্বাহ্ণ

 

মারুফ সরকার, স্টাফ রিপোর্টার: সিরাজগঞ্জ ৫ আসনের বেলকুচি উপজেলার রাজাপুর ইউনিয়নের রাজাপুর বাজার সংলগ্ন পথসভায় ২নং রাজাপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মো: লালাচান আলী প্রামাণিক এর সভাপতিত্বে  প্রধান অতিথি হিসেবে দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সরকারের উন্নয়ন ও সাফল্যের কথা তুলে ধরে নৌকা মার্কায় ভোট চেয়ে বক্তব্য প্রদান করেন বেলকুচি এনায়েতপুর চৌহালী বাসীর প্রানপ্রিয় জনপ্রিয় জননেতা  মীর মোশারফ হোসেন ।

 

এছাড়া আরো বক্তব্য রাখেন  রাজাপুর ৫ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ এর সাধারণ সম্পাদক রিপন মোল্লা, রাজাপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সদস্য আব্দুর রশিদ ভুইয়া,  বেলকুচি কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক প্রো ভিপি জাহিদ হাসান মশরু, বেলকুচি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সদস্য  শহিদুল ইসলাম শফি, ২ নং স্থল ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহসভাপতি লেবু বেপারী, ২ নং রাজাপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ার হোসেন, ২ নং রাজাপুর ইউনিয়নের ইউপি সদস্য আশরাফুল আলম ।
তিনি উপস্থিত জন সাধারনকে বলেন, যেহেতু এটি আমার বোনাস জীবন আমি ২১ আগস্ট প্রেনেড হামলা থেকে বেঁচে ফিরেছি তাই আমার বোনাস জীবন আমি আমার সাধারন জনগনের জন্য কাজ করে যাবো । আমি কষ্ট পেয়েছি কিন্তু লজ্জা পাইনি কারন আমি আমার নেত্রীর মুক্তির দাবীতে  কাফনের কাপড়ের উপর জনগনের সাক্ষর নেয়ার সময় একটি সরকারি বাহিনীর কাছে লাঞ্চিত হয়েছি ।  এটা আমার জন্য গৌরবের।  আমি আমার নেত্রীর জন্য কিছু করতে পেরেছি ।

 

আমার এলাকায় অনেক কাজ বাকি আছে  সেগুলো করবো । আর আমার এলাকায় যেসব গ্রুপিং রয়েছে আমি যদি মনোনয়ন পেয়ে এমপি হতে পারি সেগুলো সমাধান করবো । আপনারা সবাই একটি কথা মনে রাখবেন, মৃত্যু পর্যন্ত আমার এলাকার উন্নয়ন ও মানুষের মঙ্গলের  জন্য কাজ করে যাবো । আপনারা সবাই আমার জন্য শুধু দোয়া করবেন । আর জননেত্রী শেখ হাসিনার জন্য দোয়া করবেন । তিনি যদি বেচেঁ থাকেন তাহলে আমাদের দেশ হবে স্মাট বাংলাদেশ  । তিনি আমাদের উন্নয়নের জন্য সব সময় চিন্তা করেন । আজ বিশ্বের বুকে বাংলাদেশকে সবাই চেনে এটা শুধু মাত্র সম্ভব আমাদের দেশ নেত্রী শেখ হাসিনার জন্য ।

 

খেলা হবে। সামনে লড়াই, ডিসেম্বরে ফাইনাল খেলা। জিততে হবে। জিততে পারবেন। কারণ, ওদের হাতে শোকের পতাকা। আমাদের হাতে শেখ হাসিনার বিজয়ের পতাকা। আমরা বিজয়ের সোনালী বন্দরে পৌঁছে যাবো।শেখ হাসিনা দিয়েছেন মেট্রোরেল, এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে, পদ্মাসেতু, কর্ণফুলী টানেল, একদিনে শত সেতু, একদিনে শত সড়ক।

 

Print Friendly and PDF