চট্টগ্রাম, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪ , ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চট্টগ্রামে এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে পতেঙ্গা থেকে লালখান বাজার, যাওয়া যাবে ২০ মিনিটে

প্রকাশ: ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২৩ ১:১০ : অপরাহ্ণ

চট্টগ্রামে নির্মিত সবচেয়ে বড় এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের উদ্বোধন করা হবে আগামী নভেম্বরে। এটি উদ্বোধনের পর পতেঙ্গা থেকে লালখান বাজার ১৬ কিলোমিটার পথ পাড়ি দেওয়া যাবে মাত্র ২০ মিনিটে। বাস্তবায়ন সংস্থা সিডিএ বলছে, এই এক্সপ্রেসওয়ে চালু হলে শুধু সময়ই কমবে না; যানজট থেকেও মুক্তি মিলবে। নগর পরিকল্পনাবিদরা বলছেন, ইপিজেড, আগ্রবাদসহ বিভিন্ন জায়গায় এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে থেকে নামতে র্যা ম্প বসানো না হলে তেমন সুফল মিলবে না এই উড়াল সেতুর।

 

 

১৬ কিলোমিটার দীর্ঘ এই এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের কাজ ইতিমধ্যে ৭৭ শতাংশ শেখ হয়েছে। পতেঙ্গা থেকে বারিকবিল্ডিং পর্যন্ত প্রায় শেষ নির্মাণকাজ। আর আগ্রাবাদ থেকে লালখান বাজার পর্যন্ত কাজ চলছে পুরোদমে।

দ্রুত কাজ শেষ করে চলতি বছরের নভেম্বরে যান চলাচলের জন্য খুলে দেওয়ার কথা বলেছেন বাস্তবায়নকারী সংস্থা সিডিএর প্রধান প্রকৌশলী কাজী হাসান বিন শামস।

 

 

এখন পতেঙ্গা থেকে লালখানবাজার যেতে ইপিজেড বন্দর আগ্রাবাদের ভয়াবহ যানজটে ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হয় যাত্রীদের। এক ঘণ্টার পথ পাড়ি দিতে সময় লাগে তিন ঘণ্টা। তবে উড়াল সড়ক চালু হলে এ পথে চলাচলকারীরা অনেক সুফল পাবেন-এমন অভিমত চালকদের।

 

 

তবে নগর পরিকল্পনাবিদরা বলছেন, এই এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে নির্মাণ হলে যাতায়াত ব্যবস্থা অনেক উন্নত হবে। ইপিজেড, বন্দর, কাঠগড়, আগ্রাবাদ এলাকায় র্যা ম সংযোগ না থাকলে যানজট নিরসনে তেমন সুফল মিলবে না বলে জানান নগর পরিকল্পনাবিদ শহীদুল আলম।  ৪ হাজার ২৯৮ কোটি টাকা ব্যয়ে বাস্তবায়িত হওয়া এই মেগাপ্রকল্পের নামকরণ করা হবে চট্টলার বীর মরহুম মহিউদ্দিন চৌধুরীর নামে।

 

 

সূত্র – নিউজ ২৪ অনলাইন

Print Friendly and PDF