চট্টগ্রাম, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪ , ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বৃহত্তর ফরিদপুর সমিতি, চট্টগ্রাম এর আয়োজনে বঙ্গবন্ধুর ৪৮ তম শাহাদাৎবার্ষিকী পালন

প্রকাশ: ৩ সেপ্টেম্বর, ২০২৩ ১০:৪১ : পূর্বাহ্ণ

সেলিম ভূঁইয়া, চট্টগ্রাম : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিকটতম আত্মীয় কাজী আকরাম উদ্দিনের হাতে গড়া সততা, ঐক্য ও সেবা এ শ্লোগানকে সামনে নিয়ে এগিয়ে চলা সমাজসেবা অধিদপ্তর কর্তৃক রেজিঃ নং ১৯২১/৯৬ একটি অরাজনৈতিক সংগঠন বৃহত্তর ফরিদপুর সমিতি, চট্টগ্রাম, হাফেজ প্লাজা, ৪র্থ তলা, গায়েবী মসজিদের বিপরীতে, পাঠানটুলী রোড, চট্টগ্রাম  সংগঠনের নিজস্ব অফিসে ৩১ আগস্ট, ২০২৩ জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৮ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে শোক থেকে শক্তি ও কল্যাণ মুখী সেবা শিরোনামে আলোচনা ও দোয়া মাহফিলের অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। সংগঠনের সহ সভাপতি মোঃ জাকির হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা ক্রীড়াবিদ এবাইদুল হক লুলু, প্রধান আলোচক ছিলেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন খান বিশেষ অতিথি ও অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, সহ-সভাপতি ক্রীড়াবিদ মারুফ শিকদার,
যুগ্ম সম্পাদক মোঃ কাজী নাসির উদ্দিন, অর্থ সম্পাদক বজলুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ এনামুল কবির বাচ্চু, সদস্য গাজী মোহাম্মদ জাকারিয়া পিন্টু, মোঃ সানা উল্লাহ, দপ্তর সম্পাদক মোঃ হান্নান মোল্লা প্রমুখ। মোঃ নাছির উদ্দিনের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যুক্তহত সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা কাজী আকরাম। বক্তরা ভাষা আন্দোলন,  শিক্ষা আন্দোলন, ঊনসত্তরের গণঅভ্যুত্থান, ৭০ এ নির্বাচন, ৭১ সালের ৭ই মার্চের ভাষণ ও মুক্তিযুদ্ধে বঙ্গবন্ধুর অবদান এবং মুক্তিযুদ্ধ পরবর্তী কালীন বাংলাদেশকে বিনির্মাণ করা, বিশ্বের দরবারে তুলে ধরাসহ প্রতিটি বিষয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অবদানের কথা স্মরণ করেন এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যে উন্নয়ন বক্তারা তা তুলে ধরেন। বাংলাদেশের মধ্যে পদ্মা সেতু, বঙ্গবন্ধু টানেল এবং  ধরনের পায়রা বন্দর, রূপকল্প পারমাণবিক বিদ্যৎকেন্দ্র সহ নানা ধরনের উন্নয়নের কথা তুলে ধরেন। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন খান বলেন কাজী আকরাম  হচ্ছেন একটি কৃষ্ণচূড়া বৃহত্তর ফরিদপুর সমিতির চট্টগ্রামের যারা সদস্য আমরা হচ্ছি শাখা প্রশাখা।
অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন মোহাম্মদ সেলিম ভূঁইয়া।
আলোচনা শেষে বঙ্গবন্ধুসহ ১৫ আগস্ট রাতে শহীদ সকল সদস্য,  মুক্তিযুদ্ধে নিহত সকল শহীদ ও ২১ আগস্ট নিহত সকল শহীদের শ্রদ্ধা ও তাঁদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করা হয়।

Print Friendly and PDF