চট্টগ্রাম, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪ , ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আগুনে ইলিশ পোড়ার আগেই দামে হাত পুড়ছে সাধারণ মানুষের

প্রকাশ: ২৯ আগস্ট, ২০২৩ ৩:১৮ : অপরাহ্ণ

ঝাঁকে ঝাঁকে ধরা পড়ছে ইলিশ। কিন্তু ইলিশের রাজ্যে বসবাস করেও কক্সবাজারের ৮০ শতাংশ মানুষই এর স্বাদ নিতে পারেন না। কারণ ঘাটে আসা অধিকাংশ ইলিশই চলে যায় ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে, এমনকি দেশের বাইরেও। ফলে আগুনে ইলিশ পোড়ার আগেই দামের আগুনে হাত পুড়ছে সাধারণ মানুষের।

তথ্য বলছে, চলতি বছরই কক্সবাজার মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রে ৭০০ টন ইলিশ তোলা হয়েছে। যেগুলো বিক্রি হচ্ছে কেজিপ্রতি দেড় হাজার থেকে আড়াই হাজার টাকা দরে। এ নিয়ে ক্রেতারা বলছেন, এত বিপুল ইলিশ পাওয়ার পরও দামের কারণে ইলিশ কিনতে পারছেন না তারা, ইলিশ যেন সোনার হরিণ।

সাধারণ মানুষরা বলছেন, ইলিশ মাছ কীভাবে খাব বলেন, যে দাম। আমাদের যে আয়, তা দিয়ে ইলিশ মাছ পাওয়া যাচ্ছে না। আবার কেউ বলছেন, অনেক মাছ ধরা পড়তেছে। কিন্তু সেভাবে মাছের দাম কমেনি।

স্থানীয় বাজার ঘুরে দেখা গেছে, সাগরে যে হারে ইলিশ ধরা পড়ছে, তার খুব কমই বাজারে দেখা মিলছে। খুচরা ব্যবসায়ীরা বলছেন, ধরা পড়া মাছ ঢাকাসহ দেশের নানা প্রান্তে পাঠিয়ে দেয়া হয়। এমনকী রপ্তানি হয় বিদেশেও। অনেকে ফ্রিজিং করে রেখে দেয় বন্ধের সময় অতিরিক্ত দামে বিক্রির জন্য। এ অবস্থায় অভ্যন্তরীণ বাজার এবং রপ্তানি নিয়ন্ত্রণের দাবি তাদের।

 

 

এদিকে মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রে দেখা যায় সরগরম অবস্থা। ট্রলার থেকে তোলা মাছের ৮০ শতাংশই ইলিশ। যা অবতরণ কেন্দ্রে নামার পরপরই নিয়ে যাচ্ছেন ঢাকার ব্যবসায়ী ও রপ্তানিকারকরা। তারাও স্বীকার করেন, কক্সবাজারের থেকে ঢাকায় দাম কম।

এ ব্যাপারে এক ব্যবসায়ী বলেন, আড়তদার থেকে কিনে প্রসেসিং করে আমরা ঢাকায় পাঠাই। ঢাকায় আবদুল্লাহপুর, বাইপাল, মাওয়া, যাত্রাবাড়ী এলাকায় পাঠানো হয়। আরেকজন ব্যবসায়ী বলেন, হ্যাঁ এটা ঠিক, ঢাকায় দাম কম।

মৎস্য অবতরণ কেন্দ্র সংশ্লিষ্টরা জানান, মোট মাছের ২০ শতাংশ স্থানীয় বাজারে যাওয়ার কথা। কিন্তু ইলিশের দাম নির্ধারণ বা স্থানীয় বাজারে সরবরাহের বিষয়টি তাদের হাতে নেই।

 

 

কক্সবাজার মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রের ব্যবস্থাপক মো. বদরুদ্দোজা বলেন, দাম নির্ধারণের ক্ষেত্রে মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রের (বিএফডিসি) কোনো ভূমিকা নেই। ওখানে দাতনদার, আড়তদার রয়েছেন, যারা মাছ ধরে তাদের নিজস্ব খরচের ওপর এবং মাছ ধরার ওপর নির্ভর করে মাছের দাম।

ইলিশের রাজ্যে বসবাস করেও কক্সবাজারের অন্তত ৮০ শতাংশ মানুষই ইলিশের স্বাদ নিতে পারে না।

 

 

সূত্র: চ্যানেল ২৪

Print Friendly and PDF