চট্টগ্রাম, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪ , ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সোমবার আলাদা ম্যাচে মাঠে নামছে ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা, প্রতিপক্ষ যে দল

প্রকাশ: ২৩ জুলাই, ২০২৩ ৩:৩৫ : অপরাহ্ণ

২০ জুলাই থেকে অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডের যৌথ আয়োজনে শুরু হয়েছে নারী ফুটবল বিশ্বকাপ-২০২৩। বিশ্বকাপ শুরুর তিনদিন অতিবাহিত হলেও এখন পর্যন্ত লাতিন আমেরিকার দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দেশ ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা মাঠে নামেনি।

নিজেদের প্রথম ম্যাচে আগামীকাল সোমবার (২৪ জুলাই) আলাদা আলাদা ম্যাচে মাঠে নামছে আর্জেন্টিনা ও ব্রাজিল। আর্জেন্টিনার প্রতিপক্ষ ইতালি ও ব্রাজিলের প্রতিপক্ষ পানামা।

 

আর্জেন্টিনা ও ইতালির মধ্যকার ম্যাচটি বাংলাদেশ সময় দুপুর ১২টায় অনুষ্ঠিত হবে নিউজিল্যান্ডের ইডেন পার্কে। অন্যদিকে ব্রাজিল ও পানামার মধ্যকার ম্যাচটি বাংলাদেশ সময় বিকেল ৫টায় অনুষ্ঠিত হবে অস্ট্রেলিয়ার কুপারস স্টেডিয়ামে (হিন্দমার্শ স্টেডিয়াম)।

আর্জেন্টিনা ‘জি’ গ্রুপ থেকে এবার বিশ্বকাপে অংশ নিচ্ছে। যেখানে বাকি প্রতিপক্ষরা হলো ইতালি, দক্ষিণ আফ্রিকা ও সুইডেন। অন্যদিকে ব্রাজিল অংশ নিচ্ছে ‘এফ’ গ্রুপ থেকে। যেখানে তাদের বাকি প্রতিপক্ষ হলো পানামা, জ্যামাইকা ও ফ্রান্স।

নারীদের বিশ্বআসরে সর্বোচ্চ চারবারের চ্যাম্পিয়ন যুক্তরাষ্ট্র। এরপরই দুটি শিরোপা নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে জার্মানি। ২০১৯ সালে ফ্রান্সে অনুষ্ঠিত সবশেষ আসরের চ্যাম্পিয়ন যুক্তরাষ্ট্র। একবার করে শিরোপা রয়েছে জাপান ও নরওয়ের। পুরুষদের বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনা ও ব্রাজিল যথাক্রমে ৩ ও ৫ বার শিরোপা ঘরে তুললেও নারীদের বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত দেশ দু’টি শিরোপার দেখা পায়নি।

নয় আসরের মধ্যে আর্জেন্টিনা মোটে এবারেরটি নিয়ে চারটি আসরে অংশ নেয়ার সুযোগ পেয়েছে। বাকি ৫ আসরে চারটিতে কোয়ালিফাই করতে ব্যর্থ হয় তারা। তাদের সর্বোচ্চ অ্যাচিভমেন্ট গ্রুপ পর্ব পর্যন্ত। অন্যদিকে ব্রাজিল বিশ্বকাপের প্রতিটি আসরেই অংশ নিয়েছে। তাদের সর্বোচ্চ অ্যাচিভমেন্ট ২০০৭ সালে রানার্সআপ ও ১৯৯৯ সালে বিশ্বআসরে তৃতীয় হওয়া।

 

 

বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বে ব্রাজিলের দ্বিতীয় ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে আগামী বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) ফ্রান্সের বিপক্ষে অস্ট্রেলিয়ার সানক্রপ স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় বিকেল ৪টায়। তৃতীয় ও শেষ ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে আগামী বুধবার (২ আগস্ট) জ্যামাইকার বিপক্ষে অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্ন র‌্যাক্টেঙ্গুলার স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় বিকেল ৪টায়।

অন্যদিকে আর্জেন্টিনার দ্বিতীয় ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে শুক্রবার (২৮ জুলাই) দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে নিউজিল্যান্ডের ফরসেথবার স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় সকাল ৬টায়। তৃতীয় ও শেষ ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে বুধবার (২ আগস্ট) সুইডেনের বিপক্ষে নিউজিল্যান্ডের এফএমজি স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় দুপুর ১টায়।

 

 

১৯৯১ সাল থেকে শুরু হওয়া বিশ্বকাপের এটি নবম আসর। এবারই প্রথম ৩২ দল নিয়ে অনুষ্ঠিত হচ্ছে নারী ফুটবল বিশ্বকাপের আসর। চীনে অনুষ্ঠিত প্রথম আসরে ১২ দল অংশ নিয়েছিল নারী বিশ্বকাপে। এরপর ২০১১ সালে বেড়ে হয়েছিল ১৬ দলে। চার বছর আগে ২০১৯ সালে ফ্রান্সে অনুষ্ঠিত আসরে খেলেছিল ২৪ দল। এবার আরও বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩২টিতে।

অপরদিকে আগের আসরগুলো থেকেও বেড়েছে এবারের প্রাইজমানিও। ৫০ মিলিয়ন ডলার থেকে টুর্নামেন্টের প্রাইজমানি বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৫২ মিলিয়ন ডলার।

 

 

নারী ফুটবলকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার লক্ষ্যে এবারের বিশ্বকাপকে সর্বাধিক গুরুত্ব দিচ্ছে ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা। নারী বিশ্বকাপে এত দলের অংশগ্রহণ একটি বিরাট পরিবর্তনের ইঙ্গিত দেয়। অপরদিকে এবার টানা তৃতীয়বারের মতো শিরোপা জয়ের ফেভারিট হিসেবে মাঠে নামছে যুক্তরাষ্ট্র।

এবারের টুর্নামেন্টে ৩২টি দল আটটি গ্রুপে বিভক্ত হয়ে অংশ নেবে। প্রতিটি দল গ্রুপ পর্বে অন্তত তিনটি ম্যাচ খেলবে। গ্রুপের শীর্ষ আট দল নকআউট পর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জন করবে। এর পর সিডনিতে ২০ আগস্ট অনুষ্ঠিত হবে ফাইনাল।

 

 

সূত্র – চ্যানেল২৪

Print Friendly and PDF