চট্টগ্রাম, রোববার, ২৬ মে ২০২৪ , ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ম্যাচে তামিমের খেলার সিদ্ধান্তে যা বললেন পাপন

প্রকাশ: ৫ জুলাই, ২০২৩ ২:১৭ : অপরাহ্ণ

তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ওয়ানডে মাঠে গড়াতে দেড় ঘণ্টার মতো বাকি। কিন্তু এই মুহূর্তে ম্যাচ ছাড়িয়ে আলোচনার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে তামিমের খেলা না খেলার বিষয়টি। গতকাল ম্যাচ পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে টাইগার কাপ্তান জানিয়েছিলেন নিজে শতভাগ ফিট না। তবে ম্যাচে তিনি খেলবেন।

তামিমের এমন ঘোষণাতে বেজায় চটেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহের চোখে মুখেও।

তামিমের ওপর রাগলেও প্রথম ওয়ানডে থেকে তামিমকে বাদ দিচ্ছেন না হাথুরু। সেটা তামিম অধিনায়ক বলেই হয়তো। হাথুরুসিংহে এ ব্যাপারে একক সিদ্ধান্ত না নিয়ে কথা বলেছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসানের সঙ্গে।

তামিমের এমন বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় সংবাদমাধ্যমকে বিসিবি সভাপতি জানান, এটি তো আর পাড়ামহল্লার ম্যাচ নয়। আন্তর্জাতিক একটা ম্যাচ। এমন সিরিজের আগের দিন অধিনায়ক বলছে সে ফিট না। কিন্তু খেলবে, খেলে নিজের ফিটনেস বোঝার চেষ্টা করবে। এটা তো পেশাদার কোনো আচরণ হতে পারে না।

 

 

পাপন আরও বলেন, তামিমের এমন কথা আমার মেজাজ খারাপ করে দিয়েছে। কোচ আমাকে ফোন দিয়ে চিল্লাচিল্লি করেছে। আমি তো জানি না যে তামিম এসব কথা বলেছে। আমাকে কোচ এসব বলেছে।

এ বিষয়ে কোচের সঙ্গে তার কথা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, আমি ঠিক বুঝে উঠতে পারছি না, কোন দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে তামিম এমন কথা বলল। আমি কোচের সঙ্গে কথা বলেছি। কোচও এমন কোনো কিছুর সঙ্গে অভ্যস্ত নয়। সেও ক্ষুব্ধ। তামিমকে আসলে পরিষ্কার করে জানাতে হবে সে আসলে কী চায়। কোন পর্যায়ে আছে সে। দেখি আমি ম্যাচ দেখতে চট্টগ্রাম যাব।

 

 

সব মিলিয়ে তামিমের এমন কথায় পাপন যে বিরক্ত তা ফুটে উঠেছে তার পরের কথায়। তিনি বলেন, তামিম ফিট নাকি ফিট না, এটা নাকি খেলে দেখবে সে। আন্তর্জাতিক ম্যাচ কি এমন মনোভাব নিয়ে কেউ খেলতে নামে? এটা হয় নাকি। এমন করেই যাচ্ছে ও। এর আগের ম্যাচেও তো তাই করেছে।

উল্লেখ্য, আফগানিস্তানের বিপক্ষে টেস্টের আগেই তামিমের কোমরের পুরোনো ব্যথা মাথাচাড়া দেয়। রেকর্ড রানে জয়ের টেস্ট ম্যাচটি খেলাও হয়নি তার। যদিও ম্যাচ শেষ হওয়ার আগেই নেট সেশন করতে নেমে পড়েন। ঈদের আগে মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে ব্যাটিং সেশন করেছেন বিরতি দিয়ে। কিছু শট খেলতে পারছিলেন না, কিছু শট খেলে কোমরে হাত দিয়ে বসে পড়তে দেখা গেছে।

চট্টগ্রামে চার দিনের অনুশীলনে নিজেকে উজাড় করে দিতে পারেননি একদিনও। সোমবার ২৫ মিনিটের মতো নেটে ছিলেন। গতকাল তো অনুশীলনই করেননি।

 

 

সূত্র – চ্যানেল২৪

Print Friendly and PDF