চট্টগ্রাম, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪ , ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আগামী ২৪ ঘণ্টায় আরও তীব্র হয়ে অগ্রসর হচ্ছে ঘূর্ণিঝড় ‘বিপর্যয়’

প্রকাশ: ১০ জুন, ২০২৩ ১০:৫৮ : পূর্বাহ্ণ

আরব সাগরে সৃষ্ট গ্রীষ্মমণ্ডলীয় ঘূর্ণিঝড় ‘বিপর্যয়’ আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে আরও তীব্র হয়ে উত্তর-উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর হচ্ছে। শনিবার (১০ জুন) এক টুইট বার্তায় এ তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় আবহাওয়া অধিদপ্তর (আইএমডি)।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের বরাতে ভারতীয় গণমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ঘূর্ণিঝড়টি আগামী তিন দিনের মধ্যে উত্তর-উত্তর-পশ্চিম ওয়ার্ডগুলিতে আরও অগ্রসর হবে।

সেই সঙ্গে দক্ষিণ ভারতীয় অঞ্চলে আগামী চার দিনের মধ্যে মাঝারিভাবে ব্যাপক বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। এছাড়া কেরালা এবং উপকূলীয় কর্ণাটকে সোমবার পর্যন্ত ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। লাক্ষাদ্বীপে রোববার পর্যন্ত বৃষ্টি হবে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়া অধিদপ্তর।

এদিকে ভারী বৃষ্টিপাতের জন্যে কেরালার ৮টি জেলাতে ‘হলুদ’ সতর্কতা জারি করা হয়েছে। এই জেলাগুলির মধ্যে রয়েছে তিরুবনন্তপুরম, কোল্লাম, পাঠানামথিট্টা, আলাপ্পুঝা, কোট্টায়ম, ইদুক্কি, কোঝিকোড় এবং কান্নুর। সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে তিথল সমুদ্র সৈকত আগামী ১৪ জুন পর্যন্ত পর্যটকদের জন্যে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে জেলেদের সমুদ্রে যেতে নিষেধ করা হয়েছে।

আগামী ১৫ জুনের পর বৃষ্টিপাত আরও বাড়বে বলে আশা করছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

ঘূর্ণিঝড় ‘বিপর্যয়’ পাকিস্তানের করাচি উপকূলে বা ওমানে আঘাত হানতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে এর ফলে মুম্বাইসহ সংলগ্ন উপকূলীয় এলাকায় ব্যাপক বৃষ্টিপাত হতে পারে।

আরব সাগরে ঘণীভূত হওয়া প্রথম ঝড় ঘূর্ণিঝড় ‘বিপর্যয়’। উত্তর ভারত মহাসাগরের ২০২৩ সালের ঘূর্ণিঝড় মৌসুমে দ্বিতীয় ঝড় এটি। এর আগে মে মাসে বঙ্গোপসাগরে প্রথম ঘূর্ণিঝড় মোখায় রূপ নিয়ে মিয়ানমার ও বাংলাদেশের উপকূলে আঘাত হানে।

 

 

সূত্র – চ্যানেল২৪

Print Friendly and PDF