চট্টগ্রাম, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪ , ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

অভিনব কায়দায় হাসপাতাল থেকে একদিন বয়সী কন্যা শিশু চুরি

প্রকাশ: ৯ জুন, ২০২৩ ৬:০৫ : অপরাহ্ণ

ডাক্তার দেখানোর কথা বলে নাটোর সদর হাসপাতালের গাইনী ওয়ার্ড থেকে একদিন বয়সী কন্যা শিশু নিয়ে পালিয়েছে এক অজ্ঞাতনামা নারী। শুক্রবার (৯ জুন) দুপুর ১২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

পরিবার সূত্রে জানা যায়, নাটোরের নলডাঙ্গা উপজেলার মহিষডাঙ্গা গ্রামের ব্যাংক কর্মকর্তা মাহফুজুর রহমানের স্ত্রী হাসনা হেনার প্রসব ব্যাথা উঠলে বৃহস্পতিবার (৮ জুন) সকালে নাটোর সদর হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। এর কিছুক্ষণ পর একটি কন্যা সন্তানের জন্ম দেন ওই নারী।

শুক্রবার (৯ জুন) দুপুর ১২টার দিকে হাসপাতালেই দাদির কোলে থাকাবস্থায় অজ্ঞাত এক নারী ওই নবজাতককে ডাক্তারের কাছে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে দাদির কোল থেকে নিয়ে যান। কিন্তু অনেক্ষণ হয়ে যাওয়ার পর ফিরে না আসায় সন্দেহ হয়। অনেক খোঁজাখুজির পর শিশুটিসহ ওই নারীকে না পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়া হয়। এদিকে শিশু কন্যাকে হারিয়ে কন্নায় ভেঙ্গে পড়েছে পরিবারটি। পুলিশ জানিয়েছে শিশুটিকে উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

 

নাটোর সদর হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত আরএমও ডাক্তার আবু সাঈদ বলেন, আমাদের হাসপাতাল থেকে আনুমানিক সাড়ে ১১টা থেকে ১২টার দিকে একটি বাচ্চা চুরির ঘটনা ঘটেছে। আমরা ইতোমধ্যে প্রশাসনকে জানিয়েছি। সিসিটিভি ফুটেজ দেখে আমরা দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়েছি। হাসপাতালের যে সিসিটিভি ফুটেজে দেখেছি নার্সের পোশাক পরে ওই মহিলা বিভিন্ন জায়গায় ঘুরাফেরা করছে। একপর্যায়ে রিকশায় করে হাসপাতাল থেকে বের হয়ে গিয়েছে। আমরা আশা করছি দ্রুতই পুলিশের সহযোগিতায় বাচ্চাটিকে উদ্ধার করতে পারব।

নাটোর সদর থানার ওসি মোহাম্মদ নাসিম আহমেদ বলেন, সকাল ১১টার দিয়ে আমি লোকমুখে জানতে পারি যে, হাসপাতাল থেকে একদিনের একটি নবজাতক চুরি হয়ে গেছে। নার্সের ড্রেস পরিহিত অবস্থায় এক মহিলা বেড থেকে বাচ্চাটিকে ডাক্তার দেখানোর কথা বলে নিয়ে যায়।

 

 

তিনি আরও বলেন, এ ঘটনা জানার সঙ্গে সঙ্গে আমি আমার পুলিশের একাধিক টিম নিয়ে কাজ শুরু করেছি। যে অটোতে করে বাচ্চাটিকে নিয়ে যাওয়া হয়েছে আমরা সে অটো আটকের চেষ্টা করছি। বাচ্চাটিকে উদ্ধারের জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা অব্যাহত আছে। হাপতালের আরএমও আমাকে দুপুর ১টায় জানিয়েছে যে, হাসপাতাল থেকে একটি নবজাতক চুরি হয়েছে। এখন পর্যন্ত নবজাতকের পরিবারের থেকে লিখিত কোনো অভিযোগ পাইনি।

 

সূত্র – চ্যানেল২৪

Print Friendly and PDF