চট্টগ্রাম, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪ , ২রা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সমরেশ মজুমদারের মরদেহ বাড়িতে আনা হয়েছে

প্রকাশ: ৯ মে, ২০২৩ ১১:১৫ : পূর্বাহ্ণ

প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক সমরেশ মজুমদারের মরদেহ মঙ্গলবার (৯ মে) সকাল ৯টায় কলকাতার শ্যামপুকুর স্ট্রিটের বাড়িতে আনা হয়েছে। লেখকের প্রয়াণ উপলক্ষে কোনো আচার-অনুষ্ঠান হবে না বলে জানিয়েছেন তার মেয়ে দোয়েল মজুমদার। আর কলকাতার নিমতলা মহাশ্মশানে শেষকৃত হবে সমরেশ মজুমদারের।

কথাসাহিত্যিকের মেয়ে দোয়েল মজুমদার বলেন, রবীন্দ্র সদনে মরদেহ থাকবে না। আজ সকাল ৯টা থেকে ১১টা পর্যন্ত শ্যামপুকুর স্ট্রিটের বাড়িতেই বাবার মরদেহ রাখা হবে। বাবা চাইতেন না বলেই কোনো আচার-অনুষ্ঠান হবে না। দুপুরে নিমতলা মহাশ্মশানে তার শেষকৃত্য করা হবে।

এর আগে সোমবার (৮ মে) সন্ধ্যা পৌনে ৬টার দিকে কলকাতার অ্যাপোলো হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান সমরেশ মজুমদার। কিছু দিন ধরে অসুস্থ ছিলেন তিনি।

 

 

গত ২৫ এপ্রিল মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণের জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল সাহিত্য অ্যাকাডেমি পুরস্কারজয়ী এ সাহিত্যিককে। এরপর তার শ্বাসযন্ত্রের সমস্যা বাড়তে থাকে। আগে থেকেই সিওপিডির সমস্যা ছিল তার। ঘুমের মধ্যে শ্বাসকষ্টের সমস্যাও (স্লিপ অ্যাপনিয়া) বাড়তে থাকে। এরপর আইসিইউতে নেয়া হয় তাকে।

 

 

সমরেশ মজুমদার একাধারে নাটক, উপন্যাস, ছোটগল্প, ভ্রমণকাহিনি, গোয়েন্দাকাহিনি ও কিশোর উপন্যাস লেখক ছিলেন। মানবজীবনের বিচিত্র অভিজ্ঞতার রসায়ন প্রকাশ পায় তার লেখায়। বিশেষত তার উপন্যাসগুলোর বিষয়বস্তু, রচনার গতি ও গল্প বলার স্টাইল পাঠকের কাছে তার স্বকীয় উচ্চতায় আসীন করেছে।

 

 

সমরেশ মজুমদার ১৯৪২ সালের ১০ মার্চ জন্মগ্রহণ করেন। তার শৈশব কাটে ডুয়ার্সের গয়েরকাটা চা বাগানে। স্কুলজীবন শুরু জলপাইগুড়ি জেলা স্কুলে। ১৮ বছর বয়সে ১৯৬০ সালে কলকাতায় আসেন। কলকাতার স্কটিশ চার্চ কলেজ থেকে বাংলা ভাষা ও সাহিত্যে স্নাতক সম্পন্ন করেন। স্নাতকোত্তর ডিগ্রি নেন কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে।

 

 

গ্রুপ থিয়েটারের প্রতি প্রচণ্ড আসক্তি ছিল সমরেশ মজুমদারের। যে কারণে তার প্রথম গল্প ‘অন্যমাত্রা’ লেখাই হয়েছিল মঞ্চনাটকের জন্য। সেই থেকে লেখকজীবনের যাত্রা শুরু। ১৯৬৭ সালে তার লেখা ‘অন্যমাত্রা’ গল্পটি দেশ পত্রিকায় ছাপা হয়েছিল। কর্মজীবনে আনন্দবাজার পাবলিশার্স প্রাইভেট লিমিটেডের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন সমরেশ মজুমদার।

 

 

সূত্র – চ্যানেল২৪

Print Friendly and PDF