চট্টগ্রাম, রোববার, ২১ এপ্রিল ২০২৪ , ৮ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চট্টগ্রামে কনস্টেবল খুনের মামলায় ৩ ছিনতাইকারীর যাবজ্জীবন

প্রকাশ: ৮ মে, ২০২৩ ১০:৫২ : পূর্বাহ্ণ

চট্টগ্রামে পুলিশ কনস্টেবলকে ছুরিকাঘাতে খুনের মামলায় তিন ছিনতাইকারীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। একই রায়ে আদালত ছিনতাইকারীদের পালাতে সহায়তাকারী অটোরিকশা চালককেও ১০ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে।

রোববার (৭ মে) চট্টগ্রামের চতুর্থ অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ শরীফুল আলম ভূঞা এ রায় দিয়েছেন বলে ওই আদালতের বেঞ্চ সহকারী ওমর ফুয়াদ জানিয়েছেন।

যাবজ্জীবন দণ্ডিতরা হলেন- জসিম উদ্দিন রাজু, মো. মাবুদ দুলাল ও অর্জুন দে। এছাড়া অটোরিকশা চালক মো. মনিরকে দশ বছরের দণ্ড দিয়েছে আদালত। ২০১৪ সালের ১৩ জানুয়ারি রাতে চট্টগ্রাম নগর পুলিশের কনস্টেবল ফরিদ উদ্দিন ছিনতাইকারীদের ছুরিকাঘাতে নিহত হন।

 

 

মামলার নথিপত্র পর্যালোচনায় জানা গেছে, নগরীর অক্সিজেন এলাকায় দায়িত্ব পালন শেষে আগ্রাবাদ সিএন্ডবি কলোনি এলাকার বাসায় ফিরছিলেন কনস্টেবল ফরিদ। ছিনতাইকারীরা তার পথরোধ করে মালামালা কেড়ে নেয়ার চেষ্টা করলে তিনি বাধা দেন। ধস্তাধস্তির একপর্যায়ে ছুরিকাঘাতে আহত হন তিনি। পরে ফরিদকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিলে দায়িত্বরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। এই ঘটনায় ডবলমুরিং থানার তৎকালীন এসআই আমিরুল ইসলাম বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। পুলিশ অভিযান চালিয়ে মোট ছয়জনকে গ্রেপ্তার করে। এদের মধ্যে একজন অটোরিকশা চালক মনির।

 

 

ঘটনার পর তিনি আসামিদের অটোরিকশায় তুলে পালিয়ে যেতে সাহায্য করেছিলেন। ছয়জনের মধ্যে মো. নাছির ও মো. রাজিব নামে দুই আসামি মামলা তদন্তের সময়ই মারা যান। তাদের বাদ দিয়ে চারজনকে আসামি করে ২০১৫ সালের ১৭ এপ্রিল পুলিশ আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে। ২০১৬ সালের ৫ এপ্রিল আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে বিচার শুরুর আদেশ দেন আদালত। ১৫ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য শেষে আদালত এই রায় দিয়েছে।

 

 

আদালতের বেঞ্চ সহকারী ওমর ফুয়াদ জানান, রায়ে আদালত তিনজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও ২০ হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছর করে কারাদণ্ড দিয়েছে। অটোরিকশা চালক মনিরকে ১০ বছরের কারাদণ্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে। চার আসামির মধ্যে মাবুদ দুলাল রায় ঘোষণার সময় উপস্থিত ছিলেন। বাকি তিনজন পলাতক আছেন। আদালত তাদের বিরুদ্ধে সাজা পরোয়ানা জারি করেছেন বলে ওমর ফুয়াদ জানিয়েছেন।

 

 

সূত্র – চ্যানেল২৪

Print Friendly and PDF