চট্টগ্রাম, মঙ্গলবার, ৩০ মে ২০২৩ , ১৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বিপণিবিতানগুলোতে গোয়েন্দা নজরদারি বাড়ানো হবে: ডিএমপি কমিশনার

প্রকাশ: ১৫ এপ্রিল, ২০২৩ ১২:৫৫ : অপরাহ্ণ

রাজধানী ঢাকার বিপণীবিতানগুলোতে গোয়েন্দা তৎপরতা বাড়ানো হবে। সম্প্রতি আগুনের ঘটনাগুলোতে কোনো নাশকতা রয়েছে কি না, তাও খতিয়ে দেখা হবে।

শনিবার (১৫ এপ্রিল) বেলা সাড়ে ১১টায় রাজধানীর নিউ সুপার মার্কেট দক্ষিণ ভবনে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন ডিএমপি কমিশনার খন্দকার গোলাম ফারুক।

 

 

তিনি আরও বলেন, আপনারা জানেন আমাদের মার্কেটগুলো যেভাবে তৈরি করা, যার বেশিরভাগই ঝুঁকিপূর্ণ। এর মধ্যে ফায়ার সার্ভিস অনেকগুলো মার্কেট ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করেছে। আমাদের পুলিশের পক্ষ থেকে আমরা সবগুলো বিষয় মাথায় রেখে তদন্ত করব। এগুলো নিছক দুর্ঘটনা, নাকি এর পেছনে অন্য কোনও কারণ আছে তা খতিয়ে দেখা হবে।

 

 

খন্দকার গোলাম ফারুক বলেন, আপনারা জানেন যে আগের দুইটা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। এরপরে আমাদের বঙ্গ বাজারে একটি বড় আগুনের ঘটনা ঘটলো। গতকাল রাতে একটি হাজারীবাগের ট্যানারিতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। আজকে ভোরে আবার এই নিউমার্কেটে আগুন লেগেছে। বিস্ফোরণের দুইটা ঘটনাতেই আমরা মামলা নিয়েছি। বঙ্গবাজারে আপনার ঘটনায় ফায়ার সার্ভিস একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। আর আমরা ইন্টারনাল একটা তদন্ত করেছি। যদিও তদন্ত কমিটি করা হয়নি।

 

 

তিনি বলেন, আমাদের বিশেষজ্ঞরা বলছেন বিস্ফোরণের দুটি ঘটনা প্রাকৃতিক গ্যাস জমার কারণে এক্সিডেন্ট। কারণ আমাদের তদন্তে আমরা এখন পর্যন্ত কোনও নাশকতার আলামত খুঁজে পাইনি। আর দুটি আগুনের ঘটনায় ফায়ার ব্রিগেড তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। তদন্ত প্রতিবেদন দেখলে বুঝতে পারব এগুলো নাশকতা না দুর্ঘটনা।

 

 

ডিএমপি কমিশনার বলেন, আইনশৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্বের পাশাপাশি মানবিক পুলিশিংটাও আমরা করে থাকি। কোনও ঘটনা ঘটলে আমাদের সবার আগে বলা থাকে ফায়ার বিগ্রেড যেন নির্বিঘ্নে আগুন নেভানোর কাজ করতে পারে। মানুষজন যেন তার যাতায়াতের পথে কোন প্রকার প্রতিবন্ধকতা তৈরি করতে না পারে সেই ব্যবস্থা করা। তারপর কোনও জিনিসপত্র কেউ যেন লুটপাট না করে সেই বিষয়টা দেখা এবং মানবিক পুলিশিং আমাদের তিন নম্বর কাজ। এর জন্য যদি আমাদের ঝুঁকি নিতে হয়, তবে আমরা সেই ঝুকি নিতে রাজি আছি।

 

 

শনিবার (১৫ এপ্রিল) ভোর ৫টা ৪০ মিনিটে নিউ মার্কেট সংলগ্ন নিউ সুপার মার্কেটে আগুন আগুন লাগে। ৫টা ৪৩ মিনিটে আগুন নিয়ন্ত্রণে ফায়ার সার্ভিসের প্রথম ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে। এরপর একে একে ৩০টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে যোগ দেয়। পরে ফায়ার সার্ভিসের পাশাপাশি সেখানে যোগ দিয়েছে সেনা, নৌ ও বিমানবাহিনীর সদস্যরা।

 

 

সকাল ৯টা ১০ মিনিটের দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে এলেও এখনও পুরোপুরি নেভেনি। ফায়ার সার্ভিসের ডিজি বলেন, যেহেতু এখানে সব দাহ্য পদার্থ, তাই আগুন পুরোপুরি নিভতে আরও সময় লাগবে। এখন আগুন পুরোপুরি নির্বাপণ ও ডাম্পিংয়ের কাজ চলছে। যে কারণে ধোঁয়ার সৃষ্টি হচ্ছে।

 

 

Print Friendly and PDF