চট্টগ্রাম, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪ , ৭ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ভেনেজুয়েলার বিপক্ষে দুর্দান্ত জয় পেল ব্রাজিল

প্রকাশ: ১২ এপ্রিল, ২০২৩ ১২:৩৩ : অপরাহ্ণ

পাঁচবারের বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল জাতীয় ফুটবল দল। শেষ প্রীতি ম্যাচে মরক্কোর কাছে পরাজিত হয়েছে। যার ফলে ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষস্থান খুইয়ে তিনে নেমে এসেছে দলটি।

ব্রাজিল জাতীয় দল যখন র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষস্থান হারিয়ে তিনে অবস্থান করছে তখন দেশটির অনূর্ধ্ব-১৭ দল একের পর এক সাফল্য এনে দিচ্ছে। আগামী দিনের নেইমার-রিচার্লিসনরা ছুটছে শিরোপার পেছনে।

 

 

ইকুয়েডরে বসেছে অনূর্ধ্ব-১৭ দক্ষিণ আমেরিকান চ্যাম্পিয়নশিপের ১৯তম আসর। গতরাত থেকে শুরু হচ্ছে ফাইনাল রাউন্ডের লড়াই। দিনের দ্বিতীয় ও নিজেদের প্রথম ম্যাচে ভেনেজুয়েলাকে ২-১ গোলে পরাজিত করেছে ব্রাজিল অনূর্ধ্ব-১৭ দল।

মঙ্গলবার (১১ এপ্রিল) ইকুয়েডরের রাজধানী কুইটোর এস্তাদিও অলিম্পিকো আতাহুয়ালপাতে ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হয়। ব্রাজিলের হয়ে গোল করেন জোয়াও পেড্রো নাসিমান্তো দে মাতা ও এডওয়ার্দো কোগিটজকি আনাস্তাসিও। ভেনেজুয়েলার হয়ে একমাত্র গোলটি করেন জুয়ান ফার্নান্দো আরাঙ্গো তোর্তোলেরো।

 

 

খেলা শুরুর ৬ মিনিটেই লিড নিয়ে নেয় ব্রাজিল। এডওয়ার্দো কোগিটজকি আনাস্তাসিওর কর্ণার থেকে দুর্দান্ত হেডে গোল করেন জোয়াও পেড্রো নাসিমান্তো দে মাতা। এরপর গোলে মরিয়া হয়ে আক্রমণ করতে থাকে ভেনেজুয়েলা। উল্টো ম্যাচের ৩৩ মিনিটে লিড দ্বিগুণ করে ব্রাজিলের জুনিয়ররা। এবার গোলদাতা এডওয়ার্দো কোগিটজকি আনাস্তাসিও।

 

 

দুই গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় ব্রাজিল। বিরতি থেকে ফিরে ম্যাচের ৫২ মিনিটের সময় এক গোল শোধ করে ভেনেজুয়েলা। ডেভিড মার্টিনেজের কর্নার থেকে নেয়া শট হেডে জালে জড়ান জুয়ান ফার্নান্দো আরাঙ্গো তোর্তোলেরো। এরপর আর কোনো গোল না হলে ২-১ গোলে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ব্রাজিলের যুবারা।

টুর্নামেন্টের পূর্বের ১৮টি আসরের সবগুলোতেই অংশ নেয় ব্রাজিল অনূর্ধ্ব-১৭ দল। এর মধ্যে ১২টি আসরেই শিরোপা ঘরে তুলে ব্রাজিলের যুবারা। সর্বশেষ শিরোপা আসে ২০১৭ সালে। তার এখন পর্যন্ত রানার্সআপ হয়েছে তিনবার।

 

 

এবারের আসরে গ্রুপ এ’তে খেলে ব্রাজিল অনূর্ধ্ব-১৭ দল। গ্রুপ পর্বের চার ম্যাচের মধ্যে  তিনটিতে জয় ও এক ড্র নিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়ে ফাইনাল রাউন্ডে ওঠে তারা। ফাইনাল রাউন্ডে প্রতিটি দলের মোট পাঁচটি করে ম্যাচ।

 

 

ব্রাজিল ১৫ এপ্রিল প্যারাগুয়ের বিপক্ষে খেলবে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচ। স্বাগতিক ইকুয়েডরের সঙ্গে খেলবে ১৮ এপ্রিল তৃতীয় ম্যাচ। চিলির বিপক্ষে চতুর্থ ম্যাচে মুখোমুখি হবে ২১ এপ্রিল। আর চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী আর্জেন্টিনার বিপক্ষে খেলতে নামবে আগামী ২৩ এপ্রিল পঞ্চম ও শেষ ম্যাচে।

 

 

উল্লেখ্য, ফাইনাল রাউন্ড নিশ্চিত করা ছয়টি দলই মুখোমুখি হবে একে অপরের। প্রতিটি দলের থাকবে পাঁচটি করে ম্যাচ। পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা দল হবে চ্যাম্পিয়ন। আর দ্বিতীয় স্থানে থাকা দল হবে রানার্সআপ। বাকি চার দলের মধ্যে যথায়ক্রমে তৃতীয়, চতুর্থ, পঞ্চম ও ষষ্ঠ স্থান নির্ধারণ হবে।

 

 

সূত্র – চ্যানেল২৪

Print Friendly and PDF