চট্টগ্রাম, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪ , ২রা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বক্সিংয়ের ঝলমলে রাতে রাঙামাটির সুরকৃষ্ণের চমক, পিছিয়ে ছিলেন না তানজিলাও

প্রকাশ: ২২ মার্চ, ২০২৩ ১১:২৩ : পূর্বাহ্ণ

বাংলাদেশের বক্সিংয়ের জন্য গতরাত ছিল ঝলমলে একটি দিন। রাজধানীর ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেলে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল আন্তর্জাতিক পেশাদার বক্সিং প্রতিযোগিতা বেক্সিমকো এক্সবিসি ফাইট নাইট। যেখানে দর্শকরা মুখিয়ে ছিলেন বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ব্রিটিশ বক্সার রুকসানার লড়াই দেখতে। তবে হতাশ করেননি বাংলাদেশের বক্সাররাও। চমক দেখিয়েছেন রাঙামাটির সুরকৃষ্ণ চাকমা। হারলেও নিজের জাত চেনাতে ভুল করেননি বাংলাদেশের মোসাম্মত তানজিলা।

বাংলাদেশের তানজিলাকে হারাতে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ব্রিটিশ বক্সার রুকসানাকে লড়াই করতে হয়েছে ১০ম রাউন্ড পর্যন্ত। বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ রুকসানার জয়ের পার্থক্য ছিল ৯৬-৯৪ পয়েন্ট। এতে বুঝা যায় তানজিলার বিপক্ষে জয়টা খুব সহজে আসেনি তার।

তানজিলা-রুকসানা লড়াইয়ের পর রিংয়ে নেমে চমক দেখান বাংলাদেশের সুরকৃষ্ণ চাকমা। তিনি খেলেছেন লাইটওয়েট ক্যাটাগরিতে। ছয় রাউন্ডের ম্যাচে তিনি দ্বিতীয় রাউন্ডেই নকআউট করেন থাইল্যান্ডের চ্যাম্পিয়ন বক্সার পোনলাওয়াত নানচিন্দাকে।

প্রথম রাউন্ডে সুরকৃষ্ণ কিছুটা এগিয়ে ছিলেন, তবে দ্বিতীয় রাউন্ডে শুরু থেকে সুরকৃষ্ণ চড়াও হতে থাকেন পোনলাওয়াতের ওপর। একটু নিচু হয়ে তলপেটে করা সুরকৃষ্ণের পাঞ্চে ছিটকে যান থাইল্যান্ডের বক্সার। পাঞ্চের মাত্রাটা এতটাই ছিল যে রিংয়ে বসে পড়েন থাই বক্সার। একটু পর বক্সিং রিংয়ে উঠে আসেন টুর্নামেন্টের চিকিৎসকেরা! পোনলাওয়াতকে ধরে রিংয়ের নিচে নামিয়ে নেন।

এর আগে গত বছর বাংলাদেশে হওয়া দক্ষিণ এশিয়ান প্রফেশনাল বক্সিং ফাইটেও চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলেন সুরকৃষ্ণ। আবারও জিততে পেরে খুশি সুরকৃষ্ণ বলেন, আমি এই লড়াইয়ের জন্য গত তিন মাস কঠোর অনুশীলন করেছি। যে বক্সারের সঙ্গে খেলেছি সে মোটেও সহজ প্রতিপক্ষ ছিল না আমার জন্য। সে থাইল্যান্ডের জাতীয় চ্যাম্পিয়ন। অলিম্পিক দলে খেলেছে। ওকে হারিয়ে আরও বেশি আত্মবিশ্বাসী হয়েছি। এবার আমি আট রাউন্ডের বেল্টের জন্য লড়তে পারব।

বাংলাদেশের দুই বক্সারের লড়াই দিয়ে শুরু হয় প্রথম বাউট। সেখানে অংশ নেন উৎসব আহমেদ ও আমিনুল ইসলাম। দ্বিতীয় বাউটেও লড়েন বাংলাদেশের দুজন। লাইট হেভিওয়েট ওজন ক্যাটাগরিতে জাহিদুল ইসলাম মুখোমুখি হন শাহরিয়ার শান্তর।

তৃতীয় বাউটে মুখোমুখি হন ভারতের আশিষ কুমার ও আবু তালহা হৃদয়। চতুর্থ বাউটে লড়েন বাংলাদেশের মোহাম্মদ কাওসার ও ফ্রান্সের এলিয়ট মিশেল। পঞ্চম বাউটে ইংল্যান্ডের রুকসানার মুখোমুখি হন বাংলাদেশের তানজিলা। ষষ্ঠ বাউটে লড়াই করেন সুরকৃষ্ণ ও থাইল্যান্ডের পোনলাওয়াত নানচিন্দা। রাতের সপ্তম ও শেষ বাউটে মুখোমুখি হন বাংলাদেশের আল-আমিন ও ভারতের দুশান্ত শ্রীবাস্তব।

সূত্র – চ্যানেল২৪

Print Friendly and PDF