চট্টগ্রাম, বুধবার, ২৯ মে ২০২৪ , ১৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

লাইপজিখের জালে ম্যানসিটির গোল উৎসব, হালান্ডের ৫ গোল

প্রকাশ: ১৫ মার্চ, ২০২৩ ১০:৫১ : পূর্বাহ্ণ

আরবি লাইপজিখকে নিয়ে ছেলেখেলায় মাতলো ম্যানচেস্টার সিটি। গুনে গুনে প্রতিপক্ষের জালে ৭ গোল দিয়েছে সিটিজেনরা। ম্যাচের আলো একাই কেড়ে নেন ম্যানসিটির নরওয়েজিয়ান স্ট্রাইকার আর্লিং হালান্ড।

রেকর্ড ভাঙ্গা-গড়ার ছেলেখেলায় মেতেছেন আর্লিং হালান্ড। ম্যানসিটিকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে তো তুলেছেনই সঙ্গে নিজেকে নিয়ে গেছেন অনন্য উচ্চতায়। ইতিহাদে নরওয়েজিয়ান তারকার হ্যাটট্রিকসহ পাঁচ গোলে বিপর্যস্ত লাইপজিগ।

শুরুটা ২২ মিনিটে। ডি বক্সে লাইপজিগ ডিফেন্ডার বেনিয়ামিন হেনরিকসের হাতে বল লাগলে ভিএআরে পেনাল্টি পায় ম্যানসিটি। সেখান থেকে হালান্ডের সফল স্পট কিকে লিড সিটিজেনদের।

২ মিনিটের মধ্যে জোড়া পূর্ণ করেন হালান্ড। যদিও প্রথম শটটা নিয়েছিলেন কেভিন ডি ব্রুইনা। ক্রসবার বাধা হলে হেডে জাল খুজে নেন নরওয়েজিয়ান গোল মেশিন।

 

বিরতিরি আগে নিজের হ্যাটট্রিকপূর্ণ করেন হালান্ড। যদিও অনেকটা ভাগ্যের ছোঁয়ায়। চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ইতিহাসে দ্বিতীয় ফুটবলার হিসেবে প্রথমার্ধেই একাধিক হ্যাটট্রিকের রেকর্ড গড়েন তিনি। হালান্ডের প্রথমটি ছিল ইউসিএলের অভিষেক ম্যাচে। একই সঙ্গে নকআউট পর্বে ম্যানসিটির হয়ে প্রথম হ্যাটট্রিকম্যানও নরওয়েজিয়ান তারকা।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই ব্যবধান বাড়ান ইল্কায় গুন্দোয়ান। জ্যাক গ্রিলিশের সঙ্গে ওয়ান টু ওয়ান পাসে বল জালে জড়ান জার্মান মিডফিল্ডার।

এরপর আবারো হালান্ড শো। ৪ মিনিটের ব্যবধানে করেন ২ গোল। লুইস আদ্রিয়ানো, লিওনেল মেসির পর তৃতীয় ফুটবলার হিসেবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের এক ম্যাচে করলেন পাঁচ গোল। আর ইউরোপ সেরার লড়াইয়ে সবচেয়ে কম বয়স ও দ্রুততম সময়ে ৩০ গোলের মাইলফলকে হালান্ড।

মৌসুমে এরই মধ্যে সিটিজেনদের হয়ে করেছেন ৩৯ গোল। ভেঙেছেন টমি জনসনের গড়া সর্বাধিক ৩৮ গোলের গোলের রেকর্ডটি।

ইনজুরি সময়ে সমর্থকদের আনন্দে ভাষান কেভিন ডি ব্রুইনা

সূত্র – চ্যানেল২৪

Print Friendly and PDF