চট্টগ্রাম, মঙ্গলবার, ৫ মার্চ ২০২৪ , ২১শে ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

নারী শিক্ষা সম্প্রসারণে বাংলাদেশ পৃথিবীর অনুকরণীয়: টেলিযোগাযোগমন্ত্রী

প্রকাশ: ১২ মার্চ, ২০২৩ ৩:১৯ : অপরাহ্ণ

ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, নারীর ক্ষমতায়ন ও নারী শিক্ষা সম্প্রসারণে বাংলাদেশ পৃথিবীর অনুকরণীয় দেশ।

জীবনে সুপ্রতিষ্ঠিত হওয়ার জন্য ডিজিটাল দক্ষতা অর্জনের প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্ব আরোপ করে তিনি বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ কর্মসূচির সুযোগ কাজে লাগিয়ে আমাদের মেয়েরা শিল্প বাণিজ্যে অনন্য ভূমিকা পালন করছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এ এফ মুজিবুর রহমান গণিত ভবনে শনিবার সন্ধ্যা রাতে এক অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন মন্ত্রী।

এ এফ মুজিবুর রহমান ফাউন্ডেশন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের  গণিত বিভাগ এবং ফলিত গণিত বিভাগের সহযোগিতায় আয়োজিত সব বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক পর্যায়ের  ছাত্রীদের মধ্যে ৭ম নারী গণিত অলিম্পিয়াড-২০২৩ প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ এবং আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

টেলিযোগাযোগমন্ত্রী বিজ্ঞান চর্চা উৎসাহিত করতে গণিত প্রতিযোগিতাকে অত্যন্ত কার্যকর একটি উদ্যোগ হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, গণিত হচ্ছে বিজ্ঞানের ভিত্তি। আমাদের মেয়েরাও এখন জ্ঞান বিজ্ঞানের সব শাখায় অনেক সক্ষমতার পরিচয় দিচ্ছে। তারা এখন গণিত অধ্যয়নই কেবল  করছে না, প্রতিযোগিতায়ও অংশ নিচ্ছে এবং জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পুরস্কারও তারা অর্জন করছে।

প্রতিযোগী নারী শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, বাবা, স্বামী কিংবা মায়ের পরিচয়ে নয়, পেশায় দক্ষতার মাধ্যমে তোমার নামেই তোমার পরিচয় অর্জন করতে হবে। প্রত্যেককে আগামী দিনের পেশা তৈরির চিন্তা করতে হবে।

নারীর ক্ষমতায়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ১৯ বছরে গৃহীত যুগান্তকারী বিভিন্ন কর্মসূচি তুলে ধরে মন্ত্রী বলেন, আগামী দিনের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় ডিজিটাল দক্ষতা অর্জনের মাধ্যমে নিজেদেরকে তৈরি করতে হবে। ডিজিটাল যন্ত্র প্রয়োগ করার সক্ষমতা অর্জন করার জন্য নিজের প্রচেষ্টা থাকলেই যথেষ্ট। এ জন্য কম্পিউটার বিজ্ঞানী হওয়ারও প্রয়োজন নেই বলে তিনি উল্লেখ করেন।

বাংলাদেশ উইমেন্স ম্যাথমেটিক্স অলিম্পিয়াড কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ড. চন্দ্রনাথ পোদ্দারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য ড. মোহাম্মদ সামাদ, বিজ্ঞান বিভাগের ডিন ড. মোহাম্মদ আব্দুস ছামাদ, জাতীয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন, নারী নেত্রী খুশি কবির এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত বিভাগের চেয়ারম্যান ড. মো. শহীদুল ইসলাম বক্তৃতা করেন।

অনুষ্ঠানে মন্ত্রী প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন। প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকার করেন মালিক সাবিহা তাসমিন এবং বুয়েটের শিক্ষার্থী শ্রাবনী শিকদার।

Print Friendly and PDF