চট্টগ্রাম, বুধবার, ২৯ মার্চ ২০২৩ , ১৫ই চৈত্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

প্রধানমন্ত্রীকে আপ্যায়নে থাকছে হাওরের ২০ রকমের মাছ

প্রকাশ: ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ ১১:৪৪ : পূর্বাহ্ণ

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের আমন্ত্রণে কিশোরগঞ্জের হাওর উপজেলা মিঠামইন সদরের কামালপুরে রাষ্ট্রপতির পৈতৃক বাড়িতে আতিথ্য গ্রহণ করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেখানে প্রধানমন্ত্রীকে হাওরের ২০ প্রজাতির মিঠাপানির মাছ দিয়ে আপ্যায়ন করা হবে। সঙ্গে থাকবে গরু-মহিষের দুধ দিয়ে তৈরি ঐতিহ্যবাহী অষ্টগ্রামের পনির।

রাষ্ট্রপতির বড় ছেলে ও কিশোরগঞ্জ-৪ (ইটনা-মিঠামইন-অষ্টগ্রাম) আসনের সংসদ সদস্য রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আজ মঙ্গলবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) সফরের শুরুতে প্রধানমন্ত্রী সকাল সাড়ে ১০টায় বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আবদুল হামিদ সেনানিবাসের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন। সেখানে তিনি বেলা ১২টা পর্যন্ত অবস্থান করবেন।

রাষ্ট্রপতির পরিবার সূত্রে জানা গেছে, দীর্ঘ দুই যুগ পর কিশোরগঞ্জের হাওর উপজেলা মিঠামইন সফরে আসছেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা। সফরের দিন দুপুরে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের পৈতৃক বাড়ি মিঠামইন সদরের কামালপুরের মেহমান হবেন তিনি। সেখানে প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রপতির বাড়িতে তার সঙ্গে দুপুরের খাবার খাবেন।

রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক বলেন, হাওরের টাটকা মাছ দিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে আপ্যায়ন করা হবে। এছাড়া প্রধানমন্ত্রী অষ্টগ্রামের পনির অনেক পছন্দ করেন।

তিনি আরও বলেন, মিঠামইনে প্রধানমন্ত্রীর সফরের প্রস্তুতি সম্পন্ন। এখন প্রধানমন্ত্রীর জন্য অপেক্ষা। প্রধানমন্ত্রীর এ সফরকে কেন্দ্র করে হাওরবাসীর মধ্যে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমাদের হাওরবাসীর আর কোনো চাওয়া নেই। হাওরের উন্নয়নে তিনি সব করে দিয়েছেন। তার জন্য আজীবন আমাদের কৃতজ্ঞতা স্বীকার করতে হবে। প্রধানমন্ত্রী হাওরে আসছেন এটাই আমাদের বড় পাওয়া।

রাষ্ট্রপতির বাড়িতে দুপুরের খাবার শেষে প্রধানমন্ত্রী বিকেল ৩টায় মিঠামইন সদরের হেলিপ্যাডে সুধী সমাবেশে বক্তৃতা দেবেন।

প্রসঙ্গত, ১৯৯৮ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রথমবার মিঠামইন সফর করেন। তখন মো. আবদুল হামিদ কিশোরগঞ্জ-৪ (ইটনা-মিঠামইন-অষ্টগ্রাম) আসনের সংসদ সদস্য ও ডেপুটি স্পিকার ছিলেন। দীর্ঘ ২৫ বছর পর প্রধানমন্ত্রী মিঠামইন সফরে আসছেন।

Print Friendly and PDF