চট্টগ্রাম, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ , ১৪ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

পিলখানা ট্র্যাজেডিতে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা

প্রকাশ: ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ ২:১৫ : অপরাহ্ণ

শোক আর শ্রদ্ধায় পালিত হচ্ছে পিলখানা হত্যা দিবস। শনিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) সকালে বনানী সামরিক কবরস্থানে শহীদ সেনা কর্মকর্তাদের কবরে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন সরকার ও সামরিক বাহিনীর শীর্ষ কর্মকর্তা এবং নিহতদের স্বজনেরা।

 

রাজধানীর পিলখানায় ২০০৯ সালে সংঘটিত বিডিআর বিদ্রোহের ১৪তম বার্ষিকীতে দিনটিকে স্মরণ করে শহীদ সেনা কর্মকর্তাদের শ্রদ্ধা জানান রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে তাদের সামরিক সচিব, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, তিন বাহিনীর প্রধান, বিজিবি মহাপরিচালক ও নিহতদের স্বজনরা। পরে রুহের মাগফিরাত কামনা করে দোয়া করা হয়।

 

শহীদদের কবরে শ্রদ্ধা নিবেদন করতে এসে অনেকেই কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। অনেকেই গণমাধ্যমের কাছে কান্নাজড়িত গলায় সুষ্ঠ বিচার চেয়েছেন। কেন এখনও বিচারের কাজ শেষ হচ্ছে না বলে অনেককে প্রশ্ন করতেও দেখা যায়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান, সেনাবাহিনীর প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ, নৌবাহিনীর প্রধান অ্যাডমিরাল এম শাহীন ইকবাল, বিমানবাহিনীর প্রধান এয়ারভাইস মার্শাল শেখ আব্দুল হান্নান, অন্যান্য ব্যক্তিবর্গসহ শহীদ পরিবারের সদস্যরা।

 

পিলখানা ট্র্যাজেডিতে নিহত সেনা কর্মকর্তাদের শ্রদ্ধা জানায় আওয়ামী লীগ ও বিএনপি। দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ বলেন, সরকার উৎখাতে ষড়যন্ত্র ছিল পিলখানা হত্যাকাণ্ড। আর বিএনপির দাবি, সেনাবাহিনীর মনোবল ধ্বংস করতেই চক্রান্ত হয়েছিল সেদিন।

 

২০০৯ সালের ২৫ ও ২৬ ফেব্রুয়ারি পিলখানায় বিদ্রোহ চলাকালে ৫৭ সেনা কর্মকর্তাসহ ৭৪ জনকে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় হওয়া হত্যা মামলায় বিচারিক আদালতের রায়ের পর ২০১৭ সালের ২৬ ও ২৭ নভেম্বর তিন বিচারপতির সমন্বয়ে হাইকোর্টের বিশেষ বেঞ্চ রায় ঘোষণা করে।

হাইকোর্টের রায়ে ১৩৯ আসামির মৃত্যুদণ্ড বহাল রাখা হয়। যাবজ্জীবন সাজা দেয়া হয় ১৮৫ জনকে এবং বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেয়া হয় ২২৮ জনকে।

সূত্র – চ্যানেল২৪

Print Friendly and PDF