চট্টগ্রাম, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪ , ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঢাকাকে স্মার্ট সিটি হিসেবে গড়ে তুলবো: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশ: ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ ৫:১৬ : অপরাহ্ণ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, জনগণের কল্যাণের কথা মাথায় রেখে সরকার বিভিন্ন পরিকল্পনা গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করছে। আমরা ঢাকা শহরকে স্মার্ট সিটি হিসেবে গড়ে তুলবো।

রোববার সকালে রাজধানীর মিরপুরে কালশী ফ্লাইওভার এবং ইসিবি স্কয়ার থেকে কালশী হয়ে মিরপুর পর্যন্ত ছয় লেনের সড়ক উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ জীববৈচিত্র্য ও চমৎকার সবুজে ভরা একটি দেশ। এই দেশকে আমরা অত্যাধুনিক প্রযুক্তিসম্পন্ন স্মার্ট হিসেবে গড়বো। ঢাকা শহরও স্মার্ট সিটি হবে। সেটাই আমাদের লক্ষ্য। সেজন্য আমরা বহু পদক্ষেপ নিচ্ছি। ঢাকা শহরের প্রধান সমস্যা পূর্ব-পশ্চিমের মধ্যে ভালো সংযোগ না থাকা। সরকার রাজধানীর এই অংশে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নে অগ্রাধিকার দিয়েছে।

তিনি আরো বলেন, ইসিবি স্কয়ার থেকে ২ দশমিক ৩৪ কিলোমিটার কালশী ফ্লাইওভার এবং ৩ দশমিক ৭০ কিলোমিটার প্রশস্ত ও ছয় লেনের সড়ক মিরপুর, ডিওএইচএস, পল্লবী, কালশী, মহাখালী, মানিকদী, মাটিকাটা, ভাসানটেক, বনানী, উত্তরা এবং বিমানবন্দরে যোগাযোগ সহজ করবে। মেট্রোরেলের পর কালশী ফ্লাইওভার ও ছয়লেন সড়কের কারণে যানজট অনেকটাই কমে যাবে।

শেখ হাসিনা বলেন, ২০১১ সালে ঢাকা শহরকে দুই ভাগ করার পর গত ১২ বছরে উত্তর সিটি কর্পোরেশনে ৩,৫০০ কোটি টাকার ২৩টি প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হয়েছে। দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনে ৩ হাজার কোটি টাকার ১৬টি প্রকল্প বাস্তবায়িত হয়েছে। এসব প্রকল্পের আওতায় রাজধানীর সৌন্দর্যায়ন, পানি সরবরাহ ব্যবস্থাপনার উন্নয়ন, ফুটপাথ নির্মাণ ও উন্নয়ন, সড়ক, সেতু ও ফ্লাইওভারের পাশাপাশি বর্জ্য ব্যবস্থাপনার উন্নয়ন করা হয়েছে।

সরকার প্রধান বলেন, দেশের বড় বড় অবকাঠামো উন্নয়নে এখন পর্যন্ত সব অর্জন হয়েছে আওয়ামী লীগের হাত ধরে। নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মাসেতু ও ঢাকায় মেট্রোরেল চালু হয়েহে। কমিউটার রেলওয়ে, ভূ-গর্ভস্থ টানেল, ঢাকার চারদিকে রিং রোড, ওয়াটারওয়ে নির্মাণকাজ শুরু হয়েছে।

তিনি বলেন, চট্টগ্রামে কর্ণফুলি নদীর তলদেশে নির্মিত বঙ্গবন্ধু টানেল শিগগিরই উদ্বোধন করা হবে। এয়ারপোর্ট-কুতুবখালী এক্সপ্রেসওয়ে এ বছরই খুলে দেওয়া হবে। এলেঙ্গা-রংপুর মহাসড়ক, আরিচা মহাসড়ক এবং ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক চার লেনে উন্নীত করার কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে। ঢাকা-পদ্মাসেতু-খুলনা এবং চট্টগ্রাম-কক্সবাজার রেল যোগাযোগ স্থাপনের কাজ চলছে। যমুনা নদীর উপর রেলসেতু নির্মাণকাজও এগিয়ে যাচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ জনগণের ভোটের অধিকারে বিশ্বাস করে। অনেক সংগ্রামের পথ বেয়েই জনগণের ভোটের অধিকার ফিরিয়ে দিয়েছি। জনগণ আওয়ামী লীগকে ভোট দিয়েছে। আমরা ২০০৮ , ২০১৪ এবং ২০১৮ জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয়ে সরকারে এসেছি। দেশের উন্নয়নের মাধ্যমে আস্থা অর্জন করে মানুষের ভোটেই বারবার সরকারে এসেছি।

নৌকা মার্কা স্বাধীনতা এনেছে, নৌকা মার্কা উন্নয়ন দিয়েছে, আগামীতেও যত উজান ঠেলে হোক- নৌকা মার্কা এগিয়ে যাবে বলে মন্তব্য করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

অনুষ্ঠানে কালশী ফ্লাইওভার ও সড়ক প্রকল্পের একটি ভিডিও ডকুমেন্টারি প্রদর্শিত হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন- এলজিআরডিমন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম, ঢাকা-১৬ আসনের সংসদ সদস্য মো. ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লা, এলজিআরডি প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য, স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব মুহাম্মদ ইব্রাহিম প্রমুখ।

Print Friendly and PDF