চট্টগ্রাম, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪ , ৭ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পুঁজিবাজারে গতি ফেরানোর সব উদ্যোগই নিষ্ফল

প্রকাশ: ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ ৩:২৫ : অপরাহ্ণ

নীতি-নির্ধারকদের কোনো উদ্যোগেই পুঁজিবাজারে লেনদেনে গতি ফিরছে না। গত সপ্তাহে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ-ডিএসই’র লেনদেন ছিল দৈনিক গড়ে চারশ’ কোটি টাকার মধ্যে। ডিএসই কর্মকর্তারা মনে করেন, বাজারে বিনিয়োগকারীদের আস্থা ফেরানোই এখন বড় চ্যালেঞ্জ। যেসব কোম্পানি লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে, তাদের এ ব্যাপারে প্রচারণা বাড়ানোর তাগিদ দিয়েছেন ডিএসই’র কর্মকর্তারা। এসব পদক্ষেপ বিনিয়োগকে আকৃষ্ট করবে বলে মনে করেন ডিএসই কর্মকর্তারা।

 

গত সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবসে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে লেনদেন হয়েছে ৪৭০ কোটি ৮৪ লাখ টাকা। যা আগের কার্যদিবসের চেয়ে ১৩৭ কোটি ৬০ লাখ টাকা কম। আর গত সপ্তাহের দ্বিতীয় তৃতীয় ও চতুর্থ কার্যদিবসে লেনদেন চারশ’ কোটি টাকার মধ্যেই সীমাবদ্ধ ছিল। আর শেষ কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছে ৩৪০ কোটি ৩৩ লাখ টাকা। যা আগের দিনের তুলনায় ৯১ কোটি ১৬ লাখ টাকা কম। লেনদেন শুধু আগের দিনের তুলনায় কমেনি, চলতি বছরের ৯ই জানুয়ারির পর ডিএসইতে এটাই সর্বনিম্ন লেনদেন।

 

পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীদের অনাগ্রহ ভাবিয়ে তুলছে সংশ্লিষ্টদের। ভালো কোম্পানি লভ্যাংশ ঘোষণার পরও ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীরা পুঁজিবাজারে তেমন আগ্রহ দেখাচ্ছেন না। যা দুশ্চিন্তার বলে মনে করেন ডিএসই’র পরিচালক শাকিল রিজভী।

পুঁজিবাজারের গতি ফেরাতে একক প্রচেষ্টা নয়, সব শ্রেণির বিনিয়োগকারীদেরকে সম্মিলিতভাবে কাজ করার তাগিদ দিলেন তিনি। গত সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ডিএসইতে ৪১টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম বেড়েছে। দাম কমেছে ১২২টির। আর অপরিবর্তিত রয়েছে১৪৫টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম।

গত সপ্তাহের পুঁজিবাজারের চিত্র

কার্যদিবস                          লেনদেন (টাকা)                  সূচক (পয়েন্ট)

রবিবার                          ৪৭০ কোটি ৮৪ লাখ                  ৬২৫৬ লাল

সোমবার                         ৪৩৫ কোটি ৪১ লাখ                 ৬২৭০ সবুজ

মঙ্গলবার                        ৪৩৩ কোটি ১০ লাখ                 ৬২৫৬ লাল

বুধবার                          ৪৩১ কোটি ৪৯ লাখ                    ৬২৪৫ লাল

বৃহস্পতিবার                    ৩৪০ কোটি ৩৩ লাখ                ৬২৪৬ সবুজ

সূত্র – বৈশাখী নিউজ

Print Friendly and PDF