চট্টগ্রাম, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪ , ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবা পাবে ১৫ লাখ পরিবার: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

প্রকাশ: ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ ৫:৪৪ : অপরাহ্ণ

সরকারি খরচে ছয় জেলার ১৫ লাখ পরিবার বিনামূল্যে ৫০ হাজার টাকার সমপরিমাণ স্বাস্থ্যসেবা পাবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

 

সোমবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে ‘স্বাস্থ্যসেবা সংক্রান্ত সমসাময়িক বিষয়’ নিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে ব্রিফিংয়ে তিনি এসব কথা জানান।

জাহিদ মালেক বলেন, স্বাস্থ্য সুরক্ষা কর্মসূচি এক জেলা থেকে ছয় জেলায় বিস্তৃত করেছি। এতে ১৫ লাখ পরিবার বছরে ৫০ হাজার টাকার সমপরিমাণ স্বাস্থ্যসেবা পাবে। মানিকগঞ্জ, বরিশাল, বরগুনা, লক্ষ্মীপুর, কুড়িগ্রাম, ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে এ সেবা পাওয়া যাবে। পর্যায়ক্রমে দেশের সব জেলায় এটি নিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা আছে।

সার্বজনীন স্বাস্থ্য সেবার আওতায় এ কর্মসূচি করা হচ্ছে জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘২০৩০ সালের মধ্যে এসডিজি অর্জন করতে হলে সার্বজনীন স্বাস্থ্যসেবাও তার একটি বিরাট অংশ হবে। মূল লক্ষ্য দরিদ্র পরিবারকে সেবা দেয়া। একটি উপজেলায় ১৫-২০ হাজার পরিবারের তালিকায় নেয়া হয়েছে।’

নারীদের জরায়ুমুখ ক্যানসার বৃদ্ধি পাচ্ছে জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা সারা দেশে স্ক্রিনিং প্রোগ্রাম (যাচাই কর্মসূচি) হাতে নিয়েছি। সব উপজেলায় এ প্রোগ্রামটি রয়েছে। এটিকে ব্যাপকভাবে বাড়াতে হবে।’

জরায়ুমুখ ক্যানসার প্রতিরোধে এইচপিবি নামের একটি টিকাও রয়েছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, চলতি বছরের সেপ্টেম্বর থেকে দেশের সব নারীকে এই এইচপিবি টিকা দেয়ার কার্যক্রম শুরু করতে যাচ্ছি। এর মধ্য দিয়ে জরায়ুমুখ ক্যানসারের সংখ্যা অনেক কমে যাচ্ছে।

এখন প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবায় জোর দেয়া হচ্ছে জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা প্রতিরোধের ওপর বেশি জোর দিচ্ছি। মানসিক স্বাস্থ্যেও জোর দিচ্ছি। স্কুল হেলথ প্রোগ্রামের জন্য একটি পুস্তিকা তৈরি করা হয়েছে, সেটি সব স্কুলে দেয়া হচ্ছে। কীভাবে ছোট ছেলে-মেয়েরা সুস্থ থাকবে, কী খাওয়া উচিত; এ ধরনের সব বিষয়ে সেখানে রয়েছে।’

হজযাত্রীদের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘এক লাখের বেশি লোক হজে যান। তাদের যে ওষুধ লাগে, সেগুলো অনেক সময় সেখানে পাওয়া যায় না। আমরা সেগুলোর বিষয়ে ভাবছি। হজ পালনের সময় তারা কীভাবে চলবে, সেই নির্দেশনা জানিয়ে একটি স্বাস্থ্যবিধি বই আকারে তৈরি করে তাদের দিচ্ছি।’

চতুর্থ ডোজ করোনা টিকা নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘চতুর্থ ডোজ যেটি দেয়া হচ্ছে, তার কোনোটিই মেয়াদোত্তীর্ণ হয়নি। এটি নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। কাউকে গুজবে কান না দেয়ার অনুরোধ জানাচ্ছি।’

Print Friendly and PDF