চট্টগ্রাম, বুধবার, ১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ , ১৮ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সেমির কঠিন সমীকরণ সঙ্গী করে সন্ধ্যায় মাঠে নামছে টাইগ্রেসরা

প্রকাশ: ২৫ জানুয়ারি, ২০২৩ ১:৩৫ : অপরাহ্ণ

দাপটের সঙ্গে তিন ম্যাচ জিতে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হলেও সুপার সিক্সের একটি হারেই শেষ হয়ে যেতে বসেছে বাংলাদেশের কিশোরীদের অনূর্ধ্ব-১৯ টি২০ বিশ্বকাপের সেমিতে খেলার স্বপ্ন। আজ সুপার সিক্সের শেষ ম্যাচে আরব আমিরাতের বিপক্ষে কেবল জিতলেই হবে না, নেট রান রেটটাকে নিয়ে যেতে হবে প্রায় পাহাড় সমান উচ্চতায়। তাই এ ম্যাচে মিরাকল কিছু হলেই কেবল সেমির আশা করতে পারেন দিশা-স্বর্ণারা।

দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারালেই নিশ্চিত হয়ে যেত সেমিফাইনাল। অথচ সে ম্যাচ হেরে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে যাওয়ার অবস্থায় পড়ে গেছে বাংলাদেশ। ভাগ্যটা আরও খারাপ হলো, সেদিন ভারতও হেরে যায় অস্ট্রেলিয়ার কাছে। এরপরও বাংলাদেশের সুযোগ সৃষ্টি হতো যদি ভারত কিংবা অস্ট্রেলিয়ার কেউ পরের ম্যাচে হেরে যেত।

কিন্তু সুপার সিক্সের দ্বিতীয় ম্যাচে কোনো অঘটন ঘটেনি। ভারত বিশাল ব্যবধানে শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে ৬ পয়েন্ট সংগ্রহ করার পাশাপাশি নেট রান রেটও বেশ মোটাতাজা করে নিয়েছে।

শ্রীলঙ্কাকে মাত্র ৫৯ রানে আটকে রাখে তারা, এর পর সে লক্ষ্য ৭.২ ওভারে টপকে যায় ভারত। অস্ট্রেলিয়া সুপার সিক্সের দ্বিতীয় ম্যাচে আরব আমিরাতকে ১০৭ রানে আটকে দেয়। ১৫.১ ওভারে চার উইকেট খুইয়ে সে লক্ষ্য টপকে গিয়ে ৬ পয়েন্ট তুলে নিয়েছে অসিরা। তিনটি করে জয়ে সমান ৬ পয়েন্ট নিয়েও নেট রান রেটে এগিয়ে থাকায় ভারত (+২.৮৪৪) এক নম্বর গ্রুপে শীর্ষে, অস্ট্রেলিয়া (+২.২১০) দুই নম্বরে।

এমনকি দক্ষিণ আফ্রিকাও শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে ৬ পয়েন্ট সংগ্রহ করে। গতকাল শুরুতে ব্যাটিং করে ৭ উইকেটে ১৩৪ রান করে প্রোটিয়া কিশোরীরা। জবাব দিতে নেমে ৮ উইকেটে ১৩৩ রান করে লঙ্কানরা। এতে করে ১ রানে শ্বাসরুদ্ধকর জয় তুলে নেয় প্রোটিয়া কিশোরীরা। এতে করে ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকা ও অস্ট্রেলিয়ার পয়েন্ট গিয়ে দাঁড়িয়েছে ৬। তাই আজ বাংলাদেশ জিতলে তাদের পয়েন্টও হবে ৬। সেক্ষেত্রে নেট রান রেটে নির্ধারিত হবে কোন দুই দল সেমিতে যাবে।

নেট রান রেটে দক্ষিণ আফ্রিকাও বাংলাদেশের চেয়ে এগিয়ে আছে। তাই আজ আরব আমিরাতের বিপক্ষে কঠিন চ্যালেঞ্জ নিয়ে নামতে হবে। প্রথমে ব্যাট করলে দেড়শর বেশি রানে জিততে হবে। আর ফিল্ডিং করলেও আমিরাতকে অল্প রানে আটকে রেখে কয়েক ওভারের মধ্যে খেলা শেষ করতে হবে।

Print Friendly and PDF