চট্টগ্রাম, রোববার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৩ , ১৫ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

চট্টগ্রামে ওসির প্রত্যাহার চেয়ে সাংবাদিকদের সমাবেশ।

প্রকাশ: ২০ জানুয়ারি, ২০২৩ ৩:১৬ : অপরাহ্ণ

এইচ এম সালাহ উদ্দিন কাদের
অনলাইন ডেক্সঃ

চট্টগ্রামে প্রকাশ্যে সাংবাদিকদের হুমকি ও ক্যামরা কেড়ে নেয়ার ঘটনায় আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যে কোতোয়ালী থানার ওসি জাহিদকে প্রত্যাহার ও শাস্তির দাবী জানিয়েছে চট্টগ্রামের সাংবাদিকরা।

বৃহস্পতিবার বিকেলে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সামনে তাৎক্ষনিক সমাবেশে সাংবাদিকরা এ দাবী জানান।
অন্যতায় সব সাংবাদিক সংগঠন ঐক্যবদ্ব ভাবে কর্মসুচী পালন করবে।

চট্টগ্রাম টিভি জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি নাসির উদ্দীনের সভাপতিত্বে অনুষ্টতি সমাবেশে চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি তপন চক্রবর্ত্তী,সাধারণ সম্পাদক ম শামসুল ইসলাম, বিএফইউজের যুগ্ম সম্পাদক কাজী মহসিন, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক দেব দুলাল ভৌমিক, সহ সভাপতি চৌধুরী ফরিদ, টিভি জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি শামসুল হক হায়দরী, টিভি জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক লতিফা রুনা, সিইউজের সহ সভাপতি রোবেল খান, সিইউজের সহ সভাপতি অনিন্দ্য টিটু, যুগ্ম সম্পাদক সাইদুল ইসলাম ও আরিচ আহমেদ শাহ বক্তব্য রাখেন।

সিইউজের সভাপতি তপন চক্রবর্ত্তী আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যে কোতোয়ালী থানার ওসি জাহিদকে প্রত্যাহারের দাবি জানান।

অন্যতায় বৃহত্তর আন্দোলনের ঘোষনার হুমকি দেন। তিনি বলেন, সিইউজের সিনিয়র সদস্য আরিচ আহমেদ শাহকে গ্রেফতারের হুমকি ও ক্যামরাম্যান সুমন গোস্বামীর ক্যামরা কেড়ে নেয়ার ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানান। তিনি বলেন,ওসি জাহিদকে ক্লোজ না করার আগে পুলিশ কমিশনারের সাথে কোন বৈঠকে বসবেনা সাংবাদিকরা।

চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক দেব দুলাল ভৌমিক বলেন, ওসি জাহিদের কোন অপকর্ম ডাকতে সাংবাদিকদের সাথে খারাপ আচরন করেছে। চট্টগ্রামে কর্মরত সাংবাদিকদের সর্ম্পকে এ ওসির কোন ধারনা নেই।ওসি জাহিদের অপকর্ম, অনৈতিক কর্মকান্ড, অনিয়ম সম্পর্কে ধারনা নিতে পুলিশ কমিশনারের প্রতি অনুরোধ জানান। আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যে ওসির বিরুদ্বে ব্যবস্হা নেয়া হলে কঠোর আন্দোলন গড়ে তুলবে সাংবাদিকরা।

সাধারন সম্পাদক শামসুল ইসলাম বলেন, যারা এ ঘটনার সাথে জড়িত তাদের বিরুদ্বে শাস্তিমুলক ব্যবস্হা গ্রহন করা না হলে চট্টগ্রামের সব সাংবাদিক সংগঠন ঐক্যবদ্ব কর্মসুচীর মাধ্যমে ওসি সহ পুলিশের বিরুদ্বে ব্যবস্হা নিতে বাধ্য করবে।

তিনি বলেন, সাংবাদিক আরিচ আহমেদ শাহ ও ক্যামরাম্যন সুমন দায়িত্ব পালনের সময় গ্রেফতারের হুমকি,ও খারাপ আচরন করে ওসি জাহেদের চট্টগ্রামে চাকরি করার কোন অধিকার নেই।যারা ন্যাক্ষ্যারজনক এ কাজ করে সাংবাদিকদের সাথে পুলিশের দুরত্ব সৃষ্টির নেপত্যে কাজ করছে।

বিএফইউজের যুগ্ম সচিব মহসীন কাজী বলেন,থানার ওসি কর্মরত সাংবাদিকদের সাথে যেভাবে আচরন করেছে সেটা কোনভাবে মেনে নেয়া যায়না।এর আগে পাচঁলাইশ থানার ওসি নিরীহ রোগীর স্বজনদের সাথে যে আচরন করেছে সেটা নিয়ে সারাদেশ তোলপাড়।এ ঘটনার কোন বিচার না হওয়ার কারনে কোতয়োলীর ওসি ন্যাক্স্যার জনক এ ঘটনা ঘটিয়েছে।

তিনি বলেন,সাধারন মানুষ থেকে গনমাধ্যম কর্মী সবার সাথে হীন আচরন করা কিছু পুলিশ সদস্য সরকারের ভাবমুর্তি ক্ষুর্ন করতে এসব আচরন করছে বলে জানান।অতি উৎসাহী পুলিশের এসব কর্মকর্তাদের বিরুদ্বে কঠোর ব্যবস্হা নেয়ার দাবি জানান ।

টিভি জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি নাসির উদ্দীন বলেন,সাংবাদিকদের কোন দল নেই।সর সময় রাস্তায় থেকে দেশের জন্য কাজ করেন।কাজ করার সময় পুলিশের হুমকি,ক্যামরা কেড়ে নেয়ার ঘটনায় দোষীদের শাস্তি ছাড়া আমরা ঘরে ফিরে যাবো না।

Print Friendly and PDF