চট্টগ্রাম, সোমবার, ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ , ২৩শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ফেসবুকে কেনাকাটায় প্রতারককে চিনবেন যেভাবে

প্রকাশ: ২ জানুয়ারি, ২০২৩ ১২:১০ : অপরাহ্ণ

প্রযুক্তির বাড়বাড়ন্তে পণ্য কেনাবেচার অন্যতম মাধ্যম হয়ে উঠেছে ফেসবুক। যে কেউ চাইলে সবার জন্য উন্মুক্ত এই মার্কেটপ্লেসে পণ্য কেনাবেচা করতে পারেন। তবে পণ্য কেনাবেচার আগে কিছু বিষয়ে সতর্ক থাকা প্রয়োজন। কেননা অনেক ক্ষেত্রেই অনলাইনে পণ্য কিনতে গিয়ে প্রতারণার শিকার হতে হয়। এজন্য প্রতারক ক্রেতা বা বিক্রেতার হাত থেকে বাঁচতে কিছু বিষয়ে খেয়াল রাখতে হবে। খবর অ্যান্ড্রয়েড পুলিশ’র।

বিক্রেতার প্রোফাইল যাচাই
কোনো পণ্য কেনার আগে অবশই বিক্রেতার প্রোফাইলে দেয়া তথ্য যাচাই করে নিন। প্রোফাইলে যদি বিক্রেতার কোনো ছবি, ব্যানার বা পণ্য বেচাকেনার অতীত তালিকা না পান, তাহলে এই বিক্রেতা প্রতারক হতে পারেন।

দামি পণ্য সস্তায় বিক্রির প্রস্তাব
কোনো বিক্রেতা যদি দামি কোনো পণ্য আপনাকে কম দামে বিক্রির কথা বলে, তাহলে বুঝবেন প্রতারণার ফন্দি আঁটছে সে। প্রতারকেরা এভাবেই ক্রেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে এবং প্রতারণা করে। এসব ক্ষেত্রে বিক্রেতা হয়তো আপনাকে নকল পণ্য দেবে, নয়তো দিন শেষে কোনো পণ্যই দেবে না।

ভিন্ন মাধ্যমে মূল্য পরিশোধ করতে বলবে
কেনাবেচা সংক্রান্ত লেনদেন পেপল বা ফেসবুক চেকআউটের মতো বিশ্বস্ত মাধ্যমে করা উচিত। এই মাধ্যমগুলো ক্রয় সুরক্ষায় নিরাপত্তা দেয় এবং পণ্য না পেলে অর্থ ফেরত দেয়। কিন্তু বিক্রেতা যদি ভেনমো বা ক্যাশঅ্যাপে মূল্য পরিশোধে জোরাজুরি করেন, তাহলে বুঝবেন কোনো সমস্যা আছে। এছাড়া পণ্য কেনাবেচায় যোগাযোগের ক্ষেত্রেও ফেসবুক মার্কেটপ্লেসের বাইরে যাওয়া উচিত নয়।

সরাসরি দেখা করতে অস্বীকৃতি জানাবেন
দাম পরিশোধের আগে বিক্রেতার সঙ্গে দেখা হলে পণ্য যাচাই-বাছাই করা যায়। কোনো বিক্রেতা যদি একই এলাকায় বসবাস করেও দেখা করতে না চান, তবে তার পণ্য ভালোভাবে যাচাই করে নেবেন। আর দেখা করলে দিনের বেলা পাবলিক প্লেসে করতে হবে।

টাকা অগ্রিম পরিশোধ করতে বলবে
অনেক সময় দেখা যায়, পণ্যের চাহিদার কথা বলে অগ্রিম কিছু অর্থ পরিশোধ করতে বলেন বিক্রেতা। এমন ক্ষেত্রে একই কথা অন্য ক্রেতাদেরও বলার আশঙ্কা রয়েছে। তবে অল্প পরিমাণ অগ্রিম দিলেও ফেসবুকের লেনদেন পদ্ধতি অনুসরণ করতে হবে।

ক্রেতা সেজে মূল্যের বাড়তি অর্থ পরিশোধ করবে
অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায়, চোর বা অপরাধীরাও বিক্রেতাদের কাছে ক্রেতার বেশে হাজির হন। তারা পণ্যের সম্ভাব্য ক্রেতা হিসেবে আগ্রহ দেখান এবং নির্ধারিত মূল্যের বেশি অর্থ পরিশোধ করেন। এক্ষেত্রে প্রতারক ভুয়া চেক, চুরি করা ক্রেডিট কার্ড বা জাল টাকায় মূল্য পরিশোধ করেন।

মূল্য পরিশোধের আগে পণ্য ডেলিভারি দিতে বলবেন
অনেকে আবার ক্রেতা সেজে মূল্য পরিশোধের আগেই পণ্য ডেলিভারি দিতে বলবেন। তারা হয়তো আপনাকে বোঝাতে চেষ্টা করবেন, মূল্য পরিশোধের আগে পণ্যটি ঠিক আছে কি না, তা তিনি যাচাই করে দেখবেন। কিন্তু পরে পণ্য নিয়ে চম্পট দেবেন।

Print Friendly and PDF