চট্টগ্রাম, সোমবার, ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ , ২৩শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শিশু আয়াতের মাথা উদ্ধার করেছে পিবিআই

প্রকাশ: ১ ডিসেম্বর, ২০২২ ১১:০৯ : পূর্বাহ্ণ

আলিনা ইসলাম আয়াত

চট্টগ্রাম নগরীর ইপিজেড এলাকায় হত্যার পর ছয় টুকরা করা শিশু আলিনা ইসলাম আয়াতের মাথা উদ্ধার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

বুধবার (৩০ নভেম্বর) দুপুর আড়াইটার দিকে ইপিজেড থানাধীন আকমল আলী রোডের স্লুইসগেটের পাশ থেকে আয়াতের খণ্ডিত পা দুটি উদ্ধার করা হয়।

পিবিআই মেট্রোর পরিদর্শক ইলিয়াস খান জানান, পিবিআই মেট্রো পুলিশ সুপার নাইমা সুলতানা রিমান্ডে থাকা আবিরকে নিয়ে পা দুটি উদ্ধারের সময় ঘটনাস্থলে ছিলেন।

গত ১৪ নভেম্বর নগরীর ইপিজেড থানার দক্ষিণ হালিশহর ওয়ার্ডের নয়ারহাট এলাকার বাসিন্দা সোহেল রানার মেয়ে আলীনা ইসলাম আয়াতকে মুক্তিপণ আদায়ের উদ্দেশ্যে অপহরণ করে আবীর। কিন্তু কোথাও আটকে রাখার জায়গা না থাকায় অপহরণের পরপরই শিশুটিকে হত্যা করে। পরে লাশ ছয় টুকরো করে সাগরে ভাসিয়ে দেয়।

১০ দিন পর ২৪ নভেম্বর রাতে আবীরকে গ্রেপ্তার করে পিবিআই। পরদিন তাকে নিয়ে দিনভর সাগরপাড়ে অভিযান চালিয়ে খণ্ডিত দেহাবশেষ উদ্ধারের চেষ্টা করে পিবিআইয়ের তদন্ত দল। কিন্তু স্রোতের টানে ভেসে যাওয়ায় টুকরোগুলো পাওয়া যায়নি।

এদিকে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) দুই দিনের রিমান্ড শেষে সোমবার সকালে আবীরকে অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আবদুল হালিমের আদালতে হাজির করে। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পিবিআই মেট্রো অঞ্চলের পরিদর্শক মনোজ দে আবারও ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। আদালত শুনানি শেষে ৭ দিনের মঞ্জুর করেন।

অপরদিকে শিশু আলীনা ইসলাম আয়াত হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার আসামি আবীর আলীর মা-বাবার তিন দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। মঙ্গলবার দুপুর ১টার দিকে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট অলি উল্লাহ শুনানি শেষে এ আদেশ দেন। রিমান্ডপ্রাপ্তরা হলেন-আবির মিয়ার বাবা আজহারুল ইসলাম ও মা আলো বেগম।

এর আগে সোমবার নগরের ইপিজেড এলাকা থেকে আবিরের মা-বাবা ও এক বোনকে আটক করা হয়। মঙ্গলবার এ মামলায় তাদের গ্রেপ্তার দেখানোর আবেদন করে তদন্তকারী সংস্থা পিবিআই।

Print Friendly and PDF