চট্টগ্রাম, শুক্রবার, ২ ডিসেম্বর ২০২২ , ১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

নেইমারকে নিয়ে ভালো খবরই দিয়েছেন তিতে

প্রকাশ: ২৫ নভেম্বর, ২০২২ ৪:২০ : অপরাহ্ণ

ব্রাজিলের বিশ্বকাপ অভিযানে নেইমার মধ্যমণি। সার্বিয়ার বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে সেটির প্রমাণও রেখেছেন। প্রথম গোলের উৎস ছিলেন বিশ্বের সবচেয়ে দামি খেলোয়াড়। তার পাস থেকে বল পেয়েই গোলমুখে শট করেছিলেন ভিনিসিয়ুস জুনিয়র। সার্বিয়ান গোলকিপারের ঠেকিয়ে দেওয়া বল জালে জড়িয়ে ব্রাজিলকে এগিয়ে নেন রিচার্লিসন। এই ফরোয়ার্ডের জোড়া গোলে সেলেসাওরা দুর্দান্ত জয় পেলেও স্বস্তি নিয়ে মাঠ ছাড়তে পারেনি। কারণ অ্যাঙ্কেলে চোট পেয়ে পুরো ম্যাচ খেলতে পারেননি নেইমার।

ব্রাজিলের ডাগ আউটে নেমে আসে রাজ্যের হতাশা। যদিও কোচ তিতে সুখবরই দিয়েছেন ভক্তদের। নেইমারের চোট গুরুতর নয় বলেই জানিয়েছেন। সামনের ম্যাচগুলোতে প্যারিস সেন্ত জার্মেই তারকাকে না পাওয়ার কোনও কারণ দেখছেন না তিনি।

তবে অ্যাঙ্কেলের আঘাতটা গুরুতরই মনে হয়েছে। বেশ ফুলেও গেছে জায়গাটা। এই অবস্থায় শঙ্কা তৈরি হয়েছে নেইমারকে নিয়ে। এমনও বলা হচ্ছে, বিশ্বকাপই হয়তো শেষ হয়ে গেছে এই ফরোয়ার্ডের! যদিও ব্রাজিল কোচ তিতে শঙ্কিত না হওয়ার মতোই খবর দিয়েছেন।

সার্বিয়ার বিপক্ষে ২-০ গোলে জেতার পর তিতে বলেছেন, ‘নেইমার বিশ্বকাপে খেলা চালিয়ে যাবে বলে আমরা বিশ্বাস করি। সে বিশ্বকাপে খেলা চালিয়ে যাওয়ার অবস্থায় আছে। কোনও সমস্যা নেই। আমি তো দেখিনি নেইমার খুব ব্যথা পাচ্ছে। তাছাড়া ওর এই অবস্থা কাটিয়ে ওঠার মতো সামর্থ্য আছে। বরং ও মাঝে মাঝে আমাকে ধন্দে ফেলে দেয়।’

চোট ও নেইমার যেন হাত ধরাধরি করে চলে। ক্যারিয়ারের শুরু থেকে চোটের সঙ্গে তার সখ্যতা। বিশেষ করে, বিশ্বকাপ এলে চোট যেন আরও জেঁকে ধরে! ২০১৪ বিশ্বকাপের পর গত আসরেও নিজের সেরাটা দিতে পারেননি ফিটনেসের কারণে। এবার চোটহীন হয়ে মাঠে নামলেও প্রথম ম্যাচেই শঙ্কা তৈরি হয়েছে।

তিতে অবশ্য চিন্তিত হওয়ার মতো কিছু দেখছেন না, ‘এটা তো দেখাই যাচ্ছে ও অ্যাঙ্কেলে ব্যথা পেয়েছে। আমি ওকে জায়গাটায় অনেক বরফ লাগাতে বলেছি, যাতে যত দ্রুত সম্ভব সেরে ওঠে এবং পরের ম্যাচের জন্য শতভাগ ফিট হয়ে ওঠে।’

নেইমার নিজেও নির্ভার আছেন। চোট নিয়ে কিছু না জানালেও নিজের টুইট বার্তায় ফুরফুরে নেইমারকেই সামনে এনেছেন। সার্বিয়া জয়ের পর সাবেক বার্সেলোনা ফরোয়ার্ডের টুইট, ‘কঠিন ম্যাচ, তবে গুরুত্বপূর্ণ জয় এসেছে। অভিনন্দন দলকে। প্রথম ধাপ পেরোনো হলো… ছয়টি (ম্যাচ) এখনও বাকি।’

Print Friendly and PDF