চট্টগ্রাম, শনিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২২ , ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সব সমালোচনার জবাব দিলেন শান্তই

প্রকাশ: ৮ নভেম্বর, ২০২২ ১১:১৭ : পূর্বাহ্ণ

শেষে সোমবার দিবাগত রাতে দেশে পৌঁছেছে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল। বাংলাদেশ সময় পৌনে ১১ টায় পৌঁছানোর কথা থাকলেও বিমান কিছুটা বিলম্বে পৌঁছায়। বিমানবন্দরের আনুষ্ঠানিকতা সেরে গণমাধ্যমের সামনে এসেছিলেন এবারের আসরে বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক নাজমুল হোসেন শান্ত।

বিশ্বকাপ মিশন শেষে দলের সঙ্গে ফেরেননি অধিনায়ক সাকিব আল হাসান ৷ দলে আরো কয়েকজন সিনিয়র খেলোয়াড় থাকলেও ২২ গজে প্রথমে নতুন বল খেলার মতো দেশে ফিরে শান্তকেই গণমাধ্যমের মুখোমুখি হতে হয়েছে। যেখানে তিনি দিয়েছেন নিজেকে নিয়ে এত সমালোচনার উত্তর।

অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিতব্য বিশ্বকাপে ব্যাটিংয়ের মতোই খানিকটা ধীরে-সুস্থে প্রশ্ন সামলেছেন শান্ত। দলের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক, এরপরও তাকে নিয়ে সমালোচনা। দেশে ফিরেই এর জবাব দিতে হয়েছে ওপেনারকে।

শান্ত বলেন, ‘আমাকে নিয়ে অনেক কথা হয়েছে। আসলে আমি ওদিকে একদম ফোকাসই দেইনি। আমি আমার খেলাতে মনোযোগ দিয়েছিলাম। আলহামদুলিল্লাহ ভালো হয়েছে। বাট আমি মনে করি, এখান থেকে যেন আরো ভালো করতে পারি। সামনে সেই চেষ্টা থাকবে।’

বিশ্বকাপ শুরুর আগে বাংলাদেশের সমর্থকদের মধ্যে সেমির আশা সেভাবে ছিল না। ২ ম্যাচ জিতে ৪ পয়েন্ট হওয়ার পর সেই আশা তৈরি হয়। পাকিস্তানের বিপক্ষে হেরে সেমির আশাভঙ্গ হলেও খুব হতাশ নন শান্ত।

এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘হতাশ বলব না। কারণ আমার মনে হয় না কেউ বিশ্বকাপ শুরুর আগে এরকমভাবে চিন্তা করছিল যে, সেমিফাইনালে যাওয়ার জন্য এরকম একটা সুযোগ তৈরি হবে। আমরা ওটাই চিন্তা করছি যে, আমরা কত ভালো ক্রিকেট খেলতে পারি।’

শান্ত আরো বলেন, ‘অবশ্য যখন ওই সুযোগটা পেয়েছিলাম তখন সবার প্ল্যান ছিল । যদিও ওই সুযোগটা নিতে পারিনি। এই আত্মবিশ্বাস কাজে দেবে যখন আমরা পরবর্তী বিশ্বকাপে খেলব। আমার মনে হয় বোলিং বিভাগটা খুবই ভালো ছিল। বোলিং বিভাগ খুবই ভালো করেছে প্রত্যেকটা ম্যাচে।’

এটি শান্তর ক্যারিয়ারের প্রথম বিশ্বকাপ। এই সফরে ভালো সময় যেমন এসেছে, ছিল খারাপ সময়ও। সেই সময় টিমমেটরা একে অন্যের পাশে ছিলেন জানিয়ে তিনি বলেন, ‘সবাই একসঙ্গে ছিল, একজনের খারাপ সময়ে সবাই পাশে ছিল। সো ব্যক্তিগতভাবে আমার প্রথম বিশ্বকাপ হিসেবে এই জিনিসটা ফিল করছি।’

Print Friendly and PDF