চট্টগ্রাম, বুধবার, ৭ ডিসেম্বর ২০২২ , ২২শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

‘গিয়ার’ পাল্টানোর দক্ষতা দেখে চালককেই করলেন বিয়ে

প্রকাশ: ৭ নভেম্বর, ২০২২ ৩:০৭ : অপরাহ্ণ

বয়স ২১ হলেও গাড়ি চালানোর হাত বেশ পাকা। তবে গাড়ির গিয়ার বদলানো দেখে প্রেমে পড়েন ১৭ বছরের খাতিজা। তাও নিজের গাড়িচালক। রূপে-গুণে কিংবা ধনী দেখে অনেকেই সংসার বাঁধেন। কিন্তু চালকের গিয়ার পাল্টানোর দক্ষতায় মুগ্ধ হয়ে বিয়ে করেছেন এ তরুণী।

ঘটনাটি পাকিস্তানের। গাড়ি চালানো শিখতে গিয়েই ২১ বছরের এ চালকের প্রেমে পড়েন খাতিজা। চালকের গিয়ার বদলানোর ধরন দেখে নিজেই দেন প্রেমের প্রস্তাব। ধর্ম-বর্ণ কিংবা জাত-পাত না দেখে নেন বিয়ের সিদ্ধান্তও।

সম্প্রতি পাকিস্তানি গণমাধ্যম ডেইলি পাকিস্তানকে সাক্ষাৎকারে নিজেদের প্রেমকাহিনির কথা জানিয়েছিলেন এ দম্পতি।

জানা গেছে, গাড়ি চালাতে জানতেন না খাতিজা। মেয়েকে গাড়ি চালানো শেখানোর জন্য এক চালককে নিয়োগ দেন খাতিজার বাবা। কিন্তু চাকা ঘোরানো শিখতে গিয়েই প্রেমে পড়েন চালকের।

খাতিজা বলেন, চালকের গিয়ার বদলানো দেখেই মুগ্ধ হই। জীবনের গিয়ার নিয়ন্ত্রণেও এ গাড়িচালকের হাত দারুণ সিদ্ধহস্ত বলেও মনে হয়েছিল। তাই গাড়িচালকের হাতে হাত রাখতে দ্বিতীয়বার ভাবিনি। বিয়ে করে এখন আমরা বেশ সুখেই আছি।

সাক্ষাৎকারে খাতিজাকে নিজের স্বামীকে উৎসর্গ করে একটি গান গাইতে বলা হয়। তখন স্বামীর উদ্দেশে ১৯৭৩ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত বলিউড সিনেমা ‘ববি’র ‘হাম তুম এক কামরে মে ব্যান্ড হো অর ছাবি খো যায়ে’ গেয়ে শোনান।

Print Friendly and PDF