চট্টগ্রাম, শনিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২২ , ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

তাসকিনের ওভারগুলো আগে শেষ করার কারণ জানালেন সাকিব

প্রকাশ: ৩ নভেম্বর, ২০২২ ১০:৫৭ : পূর্বাহ্ণ

ভারতকে টস জিতে ব্যাটিংয়ে পাঠায় বাংলাদেশ অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। সাকিবের আগে বোলিং করার সিদ্ধান্তকে সঠিকও প্রমাণ করেন তারকা পেসার তাসকিন আহমেদ। শুরু থেকেই গতি আর সুইংয়ের মিশ্রণে ভারতের টপ অর্ডারের ব্যাটারদের চাপে ফেললেন তাসকিন। তবে তার ওভারগুলো রেখে দেয়া হলো না পরের জন্য।

ম্যাচের প্রথম ইনিংসের প্রথম সাত ওভারের মধ্যে চার ওভারই করেন তাসকিন। কেন এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হলো? সেটার কারণ ম্যাচ শেষে ব্যাখ্যা করেন অধিনায়ক সাকিব।

বুধবার (২ নভেম্বর) অ্যাডিলেডে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভের ২৩তম ম্যাচে ভারতের কাছে ৫ রানে হেরেছে বাংলাদেশ। টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে ভারত ৬ উইকেটে ১৮৪ রান তুলে। বৃষ্টির কারণে জবাব দিতে নামা বাংলাদেশের পরিবর্তিত লক্ষ্য দাঁড়ায় ১৬ ওভারে ১৫১ রান। কিন্তু লিটন দাসের আগ্রাসী ইনিংস সত্ত্বেও জিততে পারেনি টাইগাররা।

এদিন ব্যাট হাতে লিটন ছাড়া কেউই সফল ছিলেন না। অধিনায়ক সাকিব আল হাসান, নাজমুল হোসেন শান্ত, আফিফ হোসেনদের ব্যর্থতায় শেষ পর্যন্ত ৫ রানে হারে বাংলাদেশ।

এদিন তাসকিন চার ওভারে মাত্র ১৫ রান খরচ করেন। যার মধ্যে ১৬টি ছিল ডট বল। ম্যাচ শেষে তাসকিন প্রসঙ্গে টাইগার কাপ্তান জানান, নির্দিষ্ট পরিকল্পনার কারণে তাসকিনকে দিয়ে টানা বল করানো হয়। সাকিব বলেন, ‘ভারতের টপ অর্ডারের চার ব্যাটারের (রোহিত, রাহুল, বিরাট কোহলি ও সুরিয়াকুমার যাদব) দিকে তাকান। তারা খুবই বিপজ্জনক। আমাদের পরিকল্পনা ছিল ওই ৪ উইকেট তুলে নেয়া। সেকারণে আমরা তাসকিনের ওভার শেষ করে ফেলি।’

সুপার টুয়েলভে বাংলাদেশের আগের তিন ম্যাচে ৮ উইকেট শিকার করেন তাসকিন। এদিন সম্ভাবনা জাগালেও তিনি পারেননি নামের পাশের উইকেটের সংখ্যা বাড়াতে।

সাকিব আরও বলেন, ‘সে (তাসকিন) আমাদের মূল বোলার। সে নিয়মিত উইকেট তুলে নিয়ে থাকে। দুর্ভাগ্যজনকভাবে সে উইকেট পায়নি। তবে সে খুবই আঁটসাঁট বল করেছে। তার অনেকগুলো বল প্রতিপক্ষের ব্যাটের আশপাশ দিয়ে গেছে। আমি মনে করি, সে দুর্ভাগা। তো পরিকল্পনা ছিল ভারতের টপ অর্ডারের উইকেটগুলো তুলে নেয়া যাতে আমরা ম্যাচ নিয়ন্ত্রণ করতে পারি।’

Print Friendly and PDF