চট্টগ্রাম, বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২ , ১৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

লোহাগাড়ায় ধর্ষণের ভিডিও ছড়িয়ে দেয়ার ভয় দেখিয়ে মোটা অংকের টাকা আদায়

প্রকাশ: ২ অক্টোবর, ২০২২ ১১:০০ : পূর্বাহ্ণ

প্রথমে রাস্তা থেকে দুই নারীকে তুলে নিয়ে পরিত্যক্ত ঘরে ধর্ষণ। এরপর বিবস্ত্র অবস্থায় ধারণ করা ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে ভুক্তভোগীদের কাছ থেকে আদায় করা হয় মোটা অংকের টাকা।

চট্টগ্রামের লোহাগাড়ার এমন ঘটনায় অভিযুক্ত একজন ধরা পড়লেও পলাতক আরেকজন। গত ২৫ সেপ্টেম্বর পাশবিক নির্যাতনের শিকার হন চট্টগ্রামের লোহাগাড়ার দুই নারী।

সেদিন সকাল ১১টার দিকে বিদ্যুৎ বিল দিয়ে রিকশাযোগে বাড়ি ফিরছিলেন দুই নারী। তখন বড়হাতিয়ার মালপুকুরিয়া ব্রিজের সামনে পৌঁছালে তাদের গতিরোধ করে স্থানীয় যুবক কায়সার এবং জালাল উদ্দিন। জোর করে তাদের তুলে নিয়ে যায় স্থানীয় তৈয়বের পাড়ায় একটি পরিত্যক্ত টিনশেড ঘরে।

ভুক্তভোগীদের দাবি, সেখানে তাদের দুজনকে ধর্ষণ করে অভিযুক্ত কায়সার এবং জালাল উদ্দিন। বিবস্ত্র করে ধারণ করে ভিডিও। এরপর থেকেই সেই ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে ভুক্তভোগীদের কাছ থেকে আদায় করা হয় মোটা অংকের টাকা।

ভুক্তভোগী দুজনকে ভর্তি করা হয় চট্টগ্রাম মেডিকেলের ওসিসিতে। চিকিৎসকরা বলছেন, প্রাথমিকভাবে পরীক্ষায় পাওয়া গেছে ধর্ষণের আলামত।

এ ঘটনায় একটি মামলা হয়েছে লোহাগাড়া থানায়। শুক্রবার (৩০ সেপ্টেম্বর) রাতে আটক করা হয়েছে অভিযুক্ত কায়সারকে। ধারণ করা সেই ভিডিও উদ্ধারে চেষ্টা চলছে বলে জানালেন পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি মো. আনোয়ার হোসেন।

কায়সার ও জালালের বিরুদ্ধে এলাকায় বিভিন্ন অপরাধে জড়িত থাকার অভিযোগ আছে। তাদের দুজনের বাড়ি তৈয়বের পাড়া এলাকায়।

 

Print Friendly and PDF