চট্টগ্রাম, বুধবার, ৭ ডিসেম্বর ২০২২ , ২২শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কম দামে রাশিয়ার তেল, গ্যাস ও গম কিনছে তালেবান

প্রকাশ: ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ২:৪৫ : অপরাহ্ণ

রাশিয়া থেকে পেট্রল, গ্যাস, ডিজেল ও গম আমদানি করতে চুক্তি স্বাক্ষর করেছে তালেবান সরকার। আফগানিস্তানের ভারপ্রাপ্ত বাণিজ্য ও শিল্পমন্ত্রী হাজি নুরুদ্দিন আজিজি এ তথ্য জানিয়েছেন।

আজিজি বলেন, তার মন্ত্রণালয় ব্যবসায়ীক অংশীদারদের সঙ্গে বৈচিত্রভাবে কাজ করছে। বৈশ্বিক বাজারের চেয়ে কম দামে জ্বালানি তেল ও খাবার দেওয়ার প্রস্তাব করেছিল রাশিয়া।

গত বছর তালেবান ক্ষমতা দখলের পর বেশিরভাগ আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক চুক্তি আটকে পড়ে।  তবে রাশিয়ার সঙ্গে তাদের বাণিজ্যের এ ধাপ পশ্চিমাদের দ্বারা আন্তর্জাতিক ব্যাংকিং থেকে বিচ্ছিন্ন করে রাখা তালেবানকে ইসলামি আন্দোলনের পথকে সহজ করবে।

এখন পর্যন্ত বিশ্বের কোনো দেশ তালেবান সরকারকে সমর্থন দেয়নি। তালেবান গত ২০ বছর ধরে আফগানিস্তানে পশ্চিমাদের সমর্থিত সরকার দ্বারা পরিচালিত হয়েছে। এ সময় তালেবানের বিরুদ্ধে মার্কিন নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট ন্যাটো যুদ্ধ শুরু করে। প্রথমে তালেবানদের জঙ্গি আখ্যা দিলেও পরে ন্যাটো আফগানিস্তান ছাড়ার আগে সংগঠনটিকে বিদ্রোহী বলে যায়। এরপর মার্কিন নেতৃত্বাধীন ন্যাটো আফগানিস্তান ছাড়ার পর ক্ষমতা দখল করে তালেবান।

তবে নানা কারণে তালেবানদের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে রেখেছে পশ্চিমারা। এছাড়া আফগানিস্তানের রিজার্ভ আটক রেখেছে যুক্তরাষ্ট্র।

পশ্চিমা কূটনৈতিকরা বলছে, তাদের মতো করে মানবাধিকার, বিশেষ করে নারীদের বিষয়ে তাদের নীতি মেনে চলতে হবে এবং কথিত আন্তর্জাতিক জঙ্গি সংগঠনগুলোর সঙ্গে সম্পর্ক বিচ্ছিন্ন করতে হবে। এ দুটি কাজ করলে পশ্চিমারা তালেবানকে স্বীকৃতি দেবে।

রাশিয়া এখন পর্যন্ত তালেবান সরকারকে স্বীকৃতি দেয়নি। তবে কাবুলের পতনের পর আন্দোলনকারী নেতাদের আতিথেয়তার আয়োজন করে মস্কো। এছাড়া আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে রাশিয়ার দূতাবাস খোলা রয়েছে।

আজিজি বলেন, চুক্তি অনুযায়ী প্রতিবছর রাশিয়া এক মিলিয়ন টন পেট্রোল, এক মিলিয়ন টন ডিজেল, পাচ লাখ টন লিকুয়িফাইড পেট্রোলিয়াম গ্যাস (এলপিজি) এবং বার্ষিক দুই মিলিয়ন টন গম পাঠাবে।

এ চুক্তির ব্যাপারে রাশিয়ার জ্বালানি ও কৃষি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীদের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তারা বিষয়টি নিয়ে সাড়া দেননি।

Print Friendly and PDF