চট্টগ্রাম, সোমবার, ৫ ডিসেম্বর ২০২২ , ২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

পঞ্চগড়ে নৌকাডুবিতে নিহত বেড়ে ৩২

প্রকাশ: ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ১:২৫ : অপরাহ্ণ

পঞ্চগড়ে করতোয়ায় নৌকাডুবির ঘটনায় আরো আটজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এ নিয়ে মোট ৩২ জনের মরদেহ উদ্ধার হয়েছে। এখনো নিখোঁজ রয়েছেন অনেকে।

সোমবার সকাল থেকে নিখোঁজদের উদ্ধারে আবারো কাজ শুরু করেছে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল।

এসব তথ‌্য নিশ্চিত করেছেন রংপুর থেকে আসা ডুবুরি দলের প্রধান মিজানুর রহমান।

তিনি বলেন, রোববার ২৪ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। পরে রাত সাড়ে ১১টার দিকে প্রথম দিনের মতো উদ্ধারকাজ স্থগিত হয়। আবার সকাল থেকেই আমরা উদ্ধার কাজে নেমেছি। এখন পর্যন্ত আরো আটজনের মরদেহ পাওয়া গেছে। এছাড়া জরুরি তথ্য কেন্দ্রে নিখোঁজদের তালিকায় আরো ২৫ জনের নাম যুক্ত হয়েছে।

এর আগে রোববার রাতে নিহত ২৪ জনের পরিচয় নিশ্চিতের তালিকা প্রকাশ করেছে জেলা প্রশাসনের জরুরি তথ্য কেন্দ্র।

আরো পড়ুন: পঞ্চগড়ে নৌকাডুবি: নিহত বেড়ে ২৯

তথ্য কেন্দ্রের দায়িত্বরত কর্মকর্তা এসিল্যান্ড ইমরানুজ্জামান বলেন, তালিকা অনুযায়ী ২৪ জনের মধ্যে ২৩ জনই হিন্দু ধর্মাবলম্বী। নিহতদের মধ‌্যে হাশেস আলী নামে একজন মুসলিম ছিলেনতার  বাড়ি পঞ্চগড়ের বড়শশী বোদার কুমার পাড়ায়।

নিহতদের মধ‌্যে যাদের নাম পাওয়া গেছে তারা হলেন, শ্যামলী রানি (১৪), লক্ষী রানি (২৫), অমল চন্দ্র (৩৫) শোভা রানি (২৭), দিপঙ্কর (৩) পিয়ন্ত (২.৫)  রুপালি ওরোফে খুকি রানি (৩৫), প্রমিলা রানি (৫৫) ধনবালা (৬০) সুনিতা রানি (৬০), ফাল্গুনী (৪৫) প্রমিলা দেবী, জ্যোতিশ চন্দ্র (৫৫), তারা রানি (২৫),  সানেকা রানি (৬০), সফলতা রানি (৪০) বিলাশ চন্দ্র (৪৫), শ্যামলী রানি ওরফে শিমুলি (৩৫),  উশোশি (৮) তনুশ্রী (৫), শ্রেয়সী, প্রিয়ন্তী(৮)। তাদের সবার বাড়ি পঞ্চগড়ে।

ইউএনও সোলেমান আলী বলেন, নিহতদের প্রত্যেকের পরিবারকে ২০ হাজার টাকা দেওয়া হবে। এছাড়া, আহতদের প্রত্যেকের পরিবারকে ৫ হাজার টাকা করে আর্থিক সহায়তা দেওয়া হবে।

প্রসঙ্গত, রোববার বিকেলে মহালয়া উপলক্ষে আউলিয়া ঘাট থেকে একটি শ্যালো ইঞ্জিনচালিত নৌকায় বড়শশী ইউনিয়নের বদেশ্বরী মন্দিরের দিকে যাচ্ছিলেন তারা। ঘাট থেকে কিছু দূর যাওয়ার পরই ডুবে যায় নৌকাটি।

Print Friendly and PDF