চট্টগ্রাম, বুধবার, ৭ ডিসেম্বর ২০২২ , ২২শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ইউক্রেন যুদ্ধে আত্মসমপর্ণ করলেই ১০ বছরের জেল

প্রকাশ: ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ৩:০৯ : অপরাহ্ণ

ইউক্রেন যুদ্ধে আত্মসমর্পণ করলেই রুশ সেনাদের ১০ বছরের কারাদণ্ড! করতে পারবে না বাহিনী ত্যাগ বা জানাতে পারবে না যুদ্ধে যাওয়ার ব্যাপারে অস্বীকৃতিও। এসব শর্ত জুড়ে দিয়ে নতুন ডিক্রি জারি করলেন প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। কিন্তু সরকারি নীতিমালা আর নিত্যনতুন ঘোষণার বিরুদ্ধে উত্তাল রাশিয়া। শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) ৩২টি শহর-লোকালয় থেকে গ্রেফতার হয়েছেন ৭৩২ জন আন্দোলনকারী। খবর আল জাজিরার।

মস্কো থেকে সেন্ট পিটার্সবাগ। গোটা রাশিয়ায় চলছে পুতিন বিরোধী বিক্ষোভ-প্রতিবাদ। যুদ্ধে অতিরিক্ত সেনা মোতায়েন বা দখলকৃত অঞ্চলগুলোর গণভোটে ক্রেমলিনের সমর্থন বন্ধে বিতরণ করা হচ্ছে লিফলেটও। যে অপরাধে শুধু শনিবারই গ্রেফতার হয়েছেন ৭ শতাধিক রুশ নাগরিক। তাদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতা অথবা কর্তব্যে অবহেলার অভিযোগে করা হয় মামলা।

অবশ্য নিরাপত্তা বাহিনীর রক্তচক্ষুকে পরোয়া করছেন না সাধারণ রুশরা। তাদের অভিযোগ, মরীচিকার পেছনে ছুটছেন পুতিন। উদ্দেশ্য হাসিলে ব্যবহার করছেন দেশবাসীকে।

এর মাঝেই নতুন ডিক্রিতে সই করলেন প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। সে অনুসারে, যুদ্ধ থেকে হঠানো যাবে না মনোযোগ। তাতে ১০ বছরের কারাদণ্ড ভোগ করতে হবে সেনাদের। তাছাড়া বিদেশিরা যুদ্ধে যোগ দিতে চাইলে পাবেন বাড়তি সুযোগ-সুবিধা।

রুশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই শোইগু বলেন, নতুন ডিক্রি সই করলেন প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। সেটি অনুসারে যেসব সেনাসদস্য আত্মসমর্পণ করছেন বা ত্যাগ করছেন বাহিনী অথবা, যুদ্ধে যেতে অস্বীকৃতি জানাবেন, তাদের ১০ বছরের কারাদণ্ড ভোগ করতে হবে। তাছাড়া সইকৃত ভিন্ন ডিক্রিতে বলা হয়েছে, বিদেশিরা পাবেন একবছরের জন্য রুশ সেনাবাহিনীতে যোগদানের সুযোগ। সেক্ষেত্রে পাঁচ বছরের আবাসন অনুমতি বাইপাস করা হবে।

বুধবার প্রথমদফা ডিক্রিতে ইউক্রেনে চলমান সামরিক অভিযানে শক্তিমত্তা বৃদ্ধির ঘোষণা দেন প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। রিজার্ভ ফোর্সের ৩ লাখ সেনাকে রণক্ষেত্রে যোগদানের নির্দেশ দেন। এ ঘোষণায় রাশিয়া ছাড়ার হিড়িক পড়ে যায়।

Print Friendly and PDF