চট্টগ্রাম, মঙ্গলবার, ৪ অক্টোবর ২০২২ , ১৯শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ফিলিস্তিনি নাগরিকের প্রেমে পড়লে লাগবে ইসরায়েলের অনুমতি

প্রকাশ: ৪ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ১:২৫ : অপরাহ্ণ

দখলকৃত পশ্চিম তীরে কোনো ফিলিস্তিনি নাগরিকের প্রেমে পড়লে বিদেশিদের অবশ্যই ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়কে জানাতে হবে। ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে জারি করা নতুন এক বিধিতে এমনটাই বলা হয়েছে। খবর বিবিসির।

ওই বিধিতে বলা হয়েছে, কোনো বিদেশি যদি ফিলিস্তিনিকে বিয়ে করেন, তাহলে ২৭ মাস পর তাদের পশ্চিম তীর ছাড়তে হবে। পশ্চিম তীরে বসবাস বা ভ্রমণে যেতে ইচ্ছুক বিদেশিদের জন্য জারি করা কঠোর নিয়মের অংশ এটি।

ফিলিস্তিন ও ইসরায়েলে কাজ করা বেসরকারি সংস্থা বা এনজিওগুলোর পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ইসরায়েল বিদেশিদের বিরুদ্ধে বিধিনিষেধকে ‘নতুন স্তরে নিয়ে গেছে’। সোমবার থেকে এ নিয়ম কার্যকর হবে।

ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে পশ্চিম তীরে বসবাসকারী ও সেখানে ভ্রমণ করা বিদেশি নাগরিকদের জন্য বিধিনিষেধের দীর্ঘ একটি তালিকা দেয়া হয়েছে। তালিকায় বলা হয়েছে, ফিলিস্তিনিদের কারো সঙ্গে সম্পর্ক শুরু করার ৩০ দিনের মধ্যে ইসরায়েলি কর্তৃপক্ষকে অবহিত করতে হবে। এছাড়া ফিলিস্তিনি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর জন্যও নতুন বিধিনিষেধ জারি করা হয়েছে। তাতে বলা হয়েছে, ১৫০ জন বিদেশি শিক্ষার্থী সেখানে ভিসা পাবেন। বিদেশি শিক্ষকদের জন্য থাকবে ১০০টি কোটা। তবে ইসরায়েলের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে এ ধরনের কোনো সীমা নেই।

এদিকে, ফিলিস্তিনি সংগঠন পিএলও বলছে, ইসরায়েলের ওই নীতি বৈষম্যমূলক। এতে একটি রাষ্ট্র ও দুটি ভিন্ন ব্যবস্থার বাস্তবতা উঠে এসেছে। তবে ইসরায়েলি কর্তৃপক্ষ বলেছে, নিরাপত্তার কারণে এই অঞ্চলে ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা প্রয়োজন।

উল্লেখ্য, ১৯৬৭ সালের মধ্যপ্রাচ্য যুদ্ধে জর্ডানের কাছ থেকে পশ্চিম তীর দখল করে ইসরায়েল। এখন কোগাট নামের ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের একটি বিভাগ ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডে প্রশাসনের ভূমিকায় রয়েছে।

Print Friendly and PDF