চট্টগ্রাম, সোমবার, ৩ অক্টোবর ২০২২ , ১৮ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ব্যাংকে চাকরি না পেয়ে আত্মহত্যা তরুণের

প্রকাশ: ১৮ আগস্ট, ২০২২ ১০:১৫ : পূর্বাহ্ণ

নিখোঁজের তিনদিন পর সুনামগঞ্জ পৌর শহরের পশ্চিম নতুনপাড়ার যুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। বুধবার (১৭ আগস্ট) বেলা সাড়ে ৩টায় সিলেটের হোটেল শাহবানের ৩য় তলার একটি কক্ষের দরজা ভেঙে জয় ভট্টাচার্য নামের ওই যুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহত জয় তার পরিবারসহ পশ্চিম নতুনপাড়া এলাকায় একটি ভাড়া বাসায় থাকতেন। তার গ্রামের বাড়ি সদর উপজেলার গৌরারং ইউনিয়নের নিয়ামতপুরে।

তার মরদেহ পাওয়া হোটেলটির সত্ত্বাধিকারী আরশ আলী জানান, ১৫ আগস্ট জয় ভট্টাচার্য হোটেলের একটি কক্ষ ভাড়া নেন। বুধবার দুপুর পর্যন্ত তিনি কক্ষ থেকে বের হননি। ডাকাডাকি করলেও সাড়া দেননি। পরে পুলিশের মাধ্যমে দরজা ভেঙে সিলিং ফ্যানের ঝুলন্ত অবস্থায় তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। হোটেল কক্ষ ভাড়া নেয়ার সময় জয় ভট্টাচার্য নিজেকে ওষুধ কোম্পানির কর্মকর্তা বলে পরিচয় দেন বলে জানান তিনি।

জানা যায়, সম্প্রতি বাংলাদেশ ব্যাংকের সহকারী পরিচালক পদে উত্তীর্ণ হয় জয় ভট্টাচার্য (২৬)। গত ১৫ আগস্ট ঢাকা যাওয়ার জন্য পুরাতন বাস স্টেশনে বাসের টিকেট কিনতে গিয়ে আর বাসায় ফিরেন নি। গত কয়েক দিন ধরে এমন সংবাদ ভাসতে দেখা যায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে। পরিবারের সঙ্গে কথা বলেও ঘটনার সত্যতা পাওয়া যায়। অবশেষে গত ১৫ আগস্ট নিখোঁজ হওয়া জয় ভট্টাচার্য্যরে মরদেহ পাওয়া গেছে বুধবার (১৭ আগস্ট) সিলেটের একটি আবাসিক হোটেলে। দুপুরে হোটেল থেকে পুলিশ জয়ের মৃতদেহ উদ্ধার করে।

পশ্চিম নতুনপাড়াবাসী ও জয়ের নিকটাত্মীয়রা জানান, বাংলাদেশ ব্যাংকের সহকারী পরিচালক পদে উত্তীর্ণ হয়ে নিয়োগের অপেক্ষায় আছে এমন খবর জয় জানায় তার পরিবার ও এলাকাবাসীকে। উত্তীর্ণ হওয়ার পর এলাকাজুড়ে মিষ্টিও বিতরণ করা হয়। কিন্তু তার চাকরি হয় নি, আত্ম সম্মানার্থে এই খবর জানাতে না পেরে আত্মহত্যার পথ বেছে নেয় সে।

সিলেট কোতোয়ালি থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. ইয়াসিন খান জয়ের পরিবারের বরাত দিয়ে বলেন, জয় তার পরিবারের সদস্যদের জানিয়েছিলেন তিনি বাংলাদেশ ব্যাংকের সহকারী পরিচালক হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন। তবে নিয়োগের কোনো কাগজপত্র দেখান নি। চাকরিতে যোগদানের জন্য ঢাকায় যাওয়ার কথা বলে তিনি বাড়ি থেকে বের হন।

ইয়াসিন আরও বলেন, আমরা মরদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালের মর্গে পাঠাচ্ছি। তার পরিবারের সদস্যরাও আসছেন।

জয় ভট্টাচার্য্যরে কাকা বিপুল মৈত্র বললেন, জয় বাংলাদেশ ব্যাংকের সহকারী পরিচালক পদে নিয়োগ পরীক্ষা দিয়েছিলো। প্রথমে শুনেছিলো সে নিয়োগ পেয়েছে। পরে জানতে পারি নিয়োগ হয় নি। এনিয়ে হতাশা থেকে এমন কাণ্ড ঘটাতে পারে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সিলেট শাখার উপ পরিচালক আশরাফ সিদ্দিকী জানান, সহকারী পরিচালক পদে জয় ভট্টাচার্য নামে কেউ নিয়োগ পেয়েছেন কি না এমন তথ্য জানা নেই।

Print Friendly and PDF