চট্টগ্রাম, শুক্রবার, ১২ আগস্ট ২০২২ , ২৮শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

অবন্ধুসুলভ দেশগুলো নিয়ে নতুন সিদ্ধান্ত পুতিনের

প্রকাশ: ২ আগস্ট, ২০২২ ১১:৪৬ : পূর্বাহ্ণ

ইউক্রেনে সামরিক অভিযান শুরুর পর রাশিয়ার পেছনে লাগা দেশগুলোর তালিকা করেছিল রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। ‘বন্ধুত্বপূর্ণ নয়’ তালিকার সেই দেশগুলো নিয়ে বিভিন্ন সময় কঠোর সিদ্ধান্তও নিয়েছে মস্কো।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরা সোমবার এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, এবার সেই দেশগুলোর ব্যাপারে নতুন সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে রাশিয়া।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রাশিয়ান পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষে একটি বিল উত্থাপন  করেছেন দেশটির আইন প্রণেতারা। বিলটিতে ‘বন্ধু নয়’ এমন দেশগুলোর নাগরিকদের রাশিয়ার শিশুদের দত্তক নেয়ার ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞার কথা বলা হয়েছে।

বিলটিতে বলা হয়েছে, আমাদের সন্তানদেরকে ‘বন্ধু নয়’ এমন দেশগুলোতে  বড় করতে পাঠানো জাতির ভবিষ্যতের জন্য একটি আঘাত। যে দেশগুলোর রাশিয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে বা তাদের নিয়ে সমালোচনা করেছে সে সব দেশগুলোকে ‘বন্ধু নয়’ এমন দেশের তালিকায় রেখেছে রাশিয়া।

যেসব দেশকে বন্ধু নয় দেশের তালিকায় রাখা হয় সেসব দেশ রাশিয়ার ভেতর অবস্থিত দূতাবাস, কনস্যুলেট, প্রতিনিধিত্বমূলক অফিস এবং রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানকে কর্মী নিয়োগ বা নিয়ে আসার বিষয়টি সীমিত করে দেয়।

চলতি বছরের এপ্রিল মাসে এ নিয়ে একটি ডিক্রি জারি করেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

রাশিয়ার ‘বন্ধু নয়’ এমন দেশের তালিকায় রাখা হয়- আলবেনিয়া, অ্যান্ডোরা, অস্ট্রেলিয়া, যুক্তরাজ্য, ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশগুলো, আইসল্যান্ড, কানাডা, লিশটেনস্টাইন, মাইক্রোনেশিয়া, মনাকো, নিউজিল্যান্ড, নরওয়ে, দক্ষিণ কোরিয়া, সান মারিনো, উত্তর মেসিডোনিয়া, সিঙ্গাপুর, যুক্তরাষ্ট্র, তাইওয়ান, ইউক্রেন, মন্টেনেগ্রো, সুইজারল্যান্ড, জাপান, গ্রিস, ডেনমার্ক, স্লোভেনিয়া, ক্রোয়েশিয়া এবং স্লোভাকিয়া।

এ ছাড়া ব্রিটিশশাসিত জার্সি দ্বীপপুঞ্জ, অ্যাঙ্গোলা, ব্রিটিশ ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ, জিব্রালটার এলাকাও রয়েছে নিষেধাজ্ঞার আওতায়।

Print Friendly and PDF