চট্টগ্রাম, শনিবার, ১৩ আগস্ট ২০২২ , ২৯শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

লাইভ চলাকালে স্ত্রীকে পুড়িয়ে খুন: স্বামীর মৃত্যুদণ্ড

প্রকাশ: ২৮ জুলাই, ২০২২ ৩:০২ : অপরাহ্ণ

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লাইভ স্ট্রিমিং করার সময় প্রাক্তন স্ত্রীকে আগুনে পুড়িয়ে খুনের দায়ে স্বামী তাং লু’র মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছে চীনের আদালত।

সংক্ষিপ্ত অনলাইন বিবৃতিতে চীনা প্রশাসন থেকে জানানো হয়, চীনের সিচুয়ান প্রদেশে তাং লু’র মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়। তারা আরও জানায়, ওই ব্যক্তি যে ধরনের অপরাধ করেছে, তার জন্যে চূড়ান্ত শাস্তিই তার প্রাপ্য।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০২০ সালে তাং তার প্রাক্তন স্ত্রীর গায়ে আগুন ধড়িয়ে দেন। এসময় টিকটকের চীনা সংস্করণ ডওয়িন-এ লাইভস্ট্রিমিং করছিলেন তিনি। গুরুতর জখম অবস্থায় লামোকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে সপ্তাহ খানেক পরে তার মৃত্যু হয়। ৩০ বছরের ওই মহিলা অনলাইনে লামো নামে পরিচিত।

প্রতিবেদনে আরও জানা যায়, সংক্ষিপ্ত ভিডিও এবং লাইভ স্ট্রিমগুলিতে, লামো সিচুয়ান পল্লী এবং তার জীবন সম্পর্কে ব্লগিং করতেন। তিনি জাতিগতভাবে তিব্বতি ছিলেন এবং ভিডিওগুলিতে প্রায়শই ঐতিহ্যবাহী তিব্বতি পোশাক পরতেন।

এই ঘটনা দেশ জুড়ে ব্যাপক নিন্দা ও ক্ষোভের সৃষ্টি করে। ২০০১ সাল পর্যন্ত চীনের আইনে পারিবারিক নির্যাতন বিবাহ বিচ্ছেদের জন্য পর্যাপ্ত কারণ বলে গণ্য করা হত না। ২০১৫ সালে শারীরিক নির্যাতনের পাশাপাশি, মানসিক নির্যাতনও পারিবারিক কলহ সংক্রান্ত আইনের আওতায় আসে। বহু ক্ষেত্রে অভিযোগ উঠেছে, নির্যাতিতাদের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ সরকার।

লামোর মৃত্যুর পরে গ্রেপ্তার করা হয় তাংকে। গত বছর অক্টোবরে তাকে মৃত্যুদণ্ড দেয় আদালত। ট্যাং এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল করলেও চলতি বছরের জানুয়ারিতে তা খারিজ করে দেয় আদালত।

Print Friendly and PDF