চট্টগ্রাম, বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২ , ১৬ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বিশেষ ক্ষেপণাস্ত্র সারমাট মোতায়েনের সময় জানালেন পুতিন

প্রকাশ: ২২ জুন, ২০২২ ৪:২৪ : অপরাহ্ণ

চলতি বছরের শেষ নাগাদ আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র সারমাট মোতায়েন করা হবে বলে জানিয়েছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। এ সময়ের মধ্যে বৃদ্ধি করা হবে রাশিয়ার সশস্ত্র বাহিনীর সক্ষমতা। অস্ত্রভাণ্ডারও আধুনিকায়ন করা হবে।

রুশ গণমাধ্যম রাশিয়া টুডে বা আরটি ও কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরার প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে। রাশিয়ার সেনাবাহিনীর নতুন গ্র্যাজুয়েটদের উদ্দেশ্যে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে দেয়া এক ভাষণে এ কথা বলেন পুতিন।

সারমাট ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েনের বিষয়ে রুশ প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘এই বছরের শেষ নাগাদ তা মোতায়েনের পরিকল্পনা করা হয়েছে।’ সারমাট ক্ষেপণাস্ত্রটি ১০ টিরও বেশি ক্ষেপণাস্ত্র বহনে সক্ষম।

‘আসন্ন সব ধরনে সামরিক হুমকি এবং ঝুঁকি বিবেচনায় নিয়ে আমরা আমাদের সশস্ত্র বাহিনীকে আরও উন্নত আরও শক্তিশালী করা বজায় রাখব’- বলেন পুতিন। এ সময় তিনি ইউক্রেনে লড়াইরত রাশিয়ার সেনাবাহিনীর সদস্যদের প্রকৃত বীর আখ্যা দিয়ে বলেন, ‘তারা সেখানে পেশাদারত্ব, সাহস এবং প্রকৃত বীরের মতো লড়ছে।’

এর আগে, চলতি বছরের এপ্রিলে নতুন পরমাণু অস্ত্রবাহী আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র সারমাটের পরীক্ষা চালায় রাশিয়া। সে সময় ‘ক্ষেপণাস্ত্রটির কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী নেই’ বলে জানিয়েছিলেন প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। তিনি আরও বলেছিলেন, ‘এটি মস্কোর শত্রুদের নতুন করে ভাবতে বাধ্য করবে।’

প্রতিবেদনে বলা হয়, সারমাট সিরিজের ক্ষেপণাস্ত্রগুলো নিয়ে বেশ কয়েক বছর ধরেই কাজ করে আসছিল রাশিয়া। ফলে এই পরীক্ষা হয়তো রাশিয়ার প্রতিপক্ষ দেশগুলোর জন্য নতুন কোনো সংবাদ নয়।

তবে, এই পরীক্ষা ইউক্রেন ও রাশিয়ার মধ্যকার চলমান সংকট আরও গভীর করবে এবং ইউক্রেনের মিত্রদের নতুন করে ভাবতে বাধ্য করবে সে বিষয়ে নিশ্চিত বিশ্লেষকেরা।

নতুন এই ক্ষেপণাস্ত্র সম্পর্কে পুতিন বলেছিলেন, ‘নতুন এই ক্ষেপণাস্ত্রটি সর্বোচ্চ কৌশলগত ও প্রযুক্তিগত বৈশিষ্ট্য সম্পন্ন এবং এতে ক্ষেপণাস্ত্রবিরোধী প্রতিরক্ষার সব আধুনিক কৌশলকে অতিক্রম করতে সক্ষম। বিশ্বে এটির কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী নেই ও দীর্ঘ সময় এর কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী থাকবেও না।’

বিশেষ এই সারমাট ক্ষেপণাস্ত্রকে পশ্চিমারা ‘দ্বিতীয় শয়তান’ বলে আখ্যা দিয়েছে। এমনিতেই রাশিয়ার পরবর্তী প্রজন্মের ক্ষেপণাস্ত্রের মধ্যে রয়েছে ‘কিনঝাল’ কিংবা ‘অ্যাভানগার্ড’ হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র। সেই তালিকা আরও ভারী করলো নতুন ক্ষেপণাস্ত্র সারমাট।

রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, সারমাটের সফল উৎক্ষেপণটি সম্পন্ন হয়েছে উত্তর রাশিয়ার প্লেসেটস্ক কসমোড্রোমে। তাদের দাবি, সারমাট পৃথিবীর যেকোনো লক্ষ্যে নির্ভুল নিশানায় আঘাত হানতে অব্যর্থ। রাশিয়ায় বসে কেবল একটি সুইচ চেপেই হামলা চালানো যাবে পৃথিবীর যে কোনো স্থানে।

Print Friendly and PDF