চট্টগ্রাম, বুধবার, ৬ জুলাই ২০২২ , ২২শে আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সিলেটে বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি, প্লাবিত হচ্ছে নতুন নতুন এলাকা

প্রকাশ: ১৭ জুন, ২০২২ ৩:৪৩ : অপরাহ্ণ

সিলেটে বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়েছে। প্লাবিত হচ্ছে নতুন নতুন এলাকা। পূর্ব থেকেই প্লাবিত হওয়া এলাকায় পানি আরও বাড়ছে। বন্যাদুর্গত এলাকায় পানিবন্দি মানুষকে উদ্ধারে সিভিল প্রশাসনের অনুরোধে কাজ শুরু করেছে সেনাবাহিনী।

আগামী ২৫ জুন পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। এবারের বন্যায় সারা সিলেটের বিদ্যুৎ ব্যবস্থা বিপর্যস্ত হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। কার্যত বন্ধ রয়েছে তিন শতাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। বৃষ্টিপাত ও ঢল অব্যাহত রয়েছে।

গত মাসের বন্যায় দক্ষিণ সুরমা, উপশহরসহ কয়েকটি এলাকার বিদ্যুতের সাব স্টেশন পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় বন্ধ করা হয়েছিল বিদ্যুৎ সরবরাহ। কিন্তু এবারের বন্যায় সারা সিলেটের বিদ্যুৎ সরবরাহকারী কুমারগাঁও ১৩২/৩৩ কেভি গ্রিড উপকেন্দ্র বন্ধের উপক্রম হয়েছে।

কুমারগাঁও গ্রিড উপকেন্দ্র সূত্রে জানা যায়, সারা সিলেটের বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হয় কুমারগাঁও ১৩২/৩৩ কেভি গ্রিড উপকেন্দ্র থেকে। এই গ্রিড উপকেন্দ্রের সুইচ ইয়ার্ডে (কন্ট্রোল রুমের বাইরের অংশ) বন্যার পানি প্রবেশ করেছে। এখন যদি কন্ট্রোল রুমের ভিতরে পানি প্রবেশ করে তাহলে এই উপকেন্দ্র বন্ধ রাখতে হবে। যার ফলে বন্ধ হয়ে যাবে সারা সিলেটর বিদ্যুৎ ব্যবস্থা।

কুমারগাঁও ১৩২/৩৩ কেভি গ্রিড উপকেন্দ্রের এক্সেন প্রকৌশলী সুরঞ্জিত সিং বলেন, ইতোমধ্যে কুমারগাঁও ১৩২/৩৩ কেভি গ্রিড উপকেন্দ্রের সুইচ ইয়ার্ডে পানি প্রবেশ করেছে। যে হারে বৃষ্টি হচ্ছে এটা চলমান থাকলে কন্ট্রোল রুমে পানি প্রবেশ করতে বেশি সময় লাগবে না। যদি কন্ট্রোল রুমে পানি প্রবেশ করে তাহলে এ গ্রিড উপকেন্দ্র বন্ধ করে দিতে হবে।

Print Friendly and PDF