চট্টগ্রাম, বুধবার, ৬ জুলাই ২০২২ , ২২শে আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

প্রাথমিক তদন্তে জানা গেল কত ডলার নিয়ে পালিয়েছেন আশরাফ গনি

প্রকাশ: ৯ জুন, ২০২২ ১২:১১ : অপরাহ্ণ

দীর্ঘ দুই দশকের মার্কিন কর্তৃত্বের অবসান ঘটিয়ে আফগানিস্তানের মসনদ এখন তালেবানের। এই বিদ্রোহী গোষ্ঠীর অভ্যুত্থানের মুখে দেশ ছেড়ে পালানোর সময় আফগানিস্তানের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট বিপুল ডলার সঙ্গে নিয়ে গেছেন বলে বিভিন্ন গণমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়।

এবার সেই বিষয়ে চাঞ্চল্যকর তথ্য দিল আফগানিস্তানের পুনর্গঠন বিষয়ক আমেরিকার বিশেষ মহাপরিদর্শক – সিগার। সংস্থাটি জানিয়েছে, আশরাফ গনি দেশ ছেড়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় কয়েক কোটি ডলার সঙ্গে নিয়ে গেছেন বলে যে খবর ব্যাপকভাবে প্রকাশিত হয়েছে, প্রাথমিক তদন্তে তার সত্যতা পাওয়া যায়নি।

আশরাফ গনি আমেরিকার পৃষ্ঠপোষকতায় ক্ষমতায় ছিলেন বলে তালেবান বহু বছর যাবত অভিযোগ করে আসছে। ফলে মার্কিন প্রতিষ্ঠান সিগারের (স্পেশাল ইন্সপেক্টর জেনারেল ফর আফগানিস্তান রিকনস্ট্রাকশন) এই তদন্ত প্রতিবেদনের সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন ওঠা স্বাভাবিক বলে পর্যবেক্ষকরা মনে করছেন।

আলজাজিরা ও ভয়েস অব আমেরিকার প্রতিবেদন অনুযায়ী, আফগানিস্তানের পুনর্গঠন বিষয়ক সংস্থা- সিগার ২০০৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। এটি মঙ্গলবার এক প্রতিবেদনে বলেছে, ২০২১ সালের ১৫ আগস্ট আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট প্রাসাদ থেকে গনিকে বহনকারী হেলিকপ্টারে ‘বেশ কিছু অর্থ’ তোলা হয়।

কিন্তু প্রত্যক্ষদর্শীদের বিবরণ অনুযায়ী এই অর্থের পরিমাণ ছিল ‘এক মিলিয়নেরও কম যা হয়তো পাঁচ লাখ ডলারের কাছাকাছি’ হবে। সিগারের প্রতিবেদনে বলা হয়, এটি এখনও প্রাথমিক তদন্তের ফলাফল এবং এটি চূড়ান্ত করার জন্য আশরাফ গনির সাক্ষাৎকার নিতে হবে।

এর আগে গত বছরের ১৫ আগস্ট তালেবান আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুল অবরোধ করার পর নিজের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা হামদুল্লাহ মুহিবসহ আরও কয়েকজন ঘনিষ্ঠ ব্যক্তিকে নিয়ে হেলিকপ্টারে করে দেশ ছেড়ে পালিয়ে যান আশরাফ গনি।

ওই দিনই তালেবানের হাতে কাবুলের পতন ঘটে। এরপর কয়েকদিন ধরে গণমাধ্যমে একথা ব্যাপকভাবে প্রচারিত হতে থাকে যে, গনি পালিয়ে যাওয়ার সময় কয়েক কোটি ডলার সঙ্গে নিয়ে গেছেন।

প্রথম কয়েকদিন গনি কোথায় গেছেন তা নিয়ে ধোঁয়াশা সৃষ্টি হলেও পরে জানা যায়, সংযুক্ত আরব আমিরাত তাকে রাজনৈতিক আশ্রয় দিয়েছে। এরপর গনি একাধিকবার তার বিরুদ্ধে ডলার সঙ্গে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ অস্বীকার করেন এবং এ সংক্রান্ত যেকোনো নিরপেক্ষ তদন্তের মুখোমুখি হতে নিজের প্রস্তুতির কথা জানান।

Print Friendly and PDF