চট্টগ্রাম, বুধবার, ৬ জুলাই ২০২২ , ২২শে আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

টিপু হত্যার মূল পরিকল্পনাকারীকে দেশে ফিরিয়ে আনলো ডিবি

প্রকাশ: ৯ জুন, ২০২২ ২:৪১ : অপরাহ্ণ

ঢাকার মতিঝিল থানা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম (টিপু) হত্যার সন্দেহভাজন মূল পরিকল্পনাকারী ও নির্দেশদাতা সুমন শিকদার ওরফে মুসাকে দেশে ফিরিয়ে এনেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ। আন্তর্জাতিক পুলিশ সংস্থা ইন্টারপোলের মাধ্যমে মুসাকে ফিরিয়ে আনা হয়। মতিঝিল বিভাগ গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) শাহিদুর রহমান রিপন যমুনা নিউজকে এ খবর নিশ্চিত করেন।

বৃহস্পতিবার (৯ জুন) সকালে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে একটি ফ্লাইটে মুসাকে সঙ্গে নিয়ে অবতরণ করে মতিঝিল ডিবির একটি টিম।

টিপু হত্যাকাণ্ডের রহস্য উন্মোচন ও অভিযানের নেতৃত্বদানকারী গোয়েন্দা শাহিদুর রহমান রিপন জানান, বাংলাদেশ পুলিশ দুবাই পুলিশের মাধ্যমে মুসাকে আটকের চেষ্টা শুরু করে। বিষয়টি টের পেয়ে দুবাই থেকে ওমানে চলে যান তিনি। পরে ওমান পুলিশের মাধ্যমে মুসাকে শনাক্ত করে দেশে ফেরত আনা হয়। তার সঙ্গে আরও ছিলেন অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) মো. রফিকুল ইসলাম ও পুলিশ সদরদফতরের এনসিবি বিভাগের সহকারী পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফয়েজ উদ্দীন।

আলোচিত এই হত্যা মামলায় এখন পর্যন্ত ১২ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের মধ্যে তিনজন আদালতে ১৬৪ ধায়ার স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। তাদের মধ্যে শ্যুটার মাসুমের জবানবন্দিতে হত্যার পরিকল্পনায় মুসার নাম আসে।

প্রসঙ্গত, গত ২৪ মার্চ রাত সোয়া ১০টার দিকে ঢাকার ব্যস্ততম এলাকা শাহজাহানপুরে নিজ গাড়িতে বাসায় ফেরার সময় এলোপাতাড়ি গুলি করে হত্যা করা হয় জাহিদুল ইসলাম টিপুকে। এসময় যানজটে রিকশায় থাকা সামিয়া আফনান নামে এক কলেজ শিক্ষার্থীও গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান। আলোচিত এই জোড়া খুনের ঘটনার দুই দিনের মাথায় গোয়েন্দা পুলিশের খিলগাঁও জোনাল টিমের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার শাহিদুর রহমানের নেতৃত্বে একটি দল শ্যুটার মাসুমকে গ্রেফতার করে। হত্যাকাণ্ডের দায় স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে মাসুম। মাসুমের স্বীকারোক্তিতে হত্যাকাণ্ডের পরিকল্পনায় আরফান, শামীম, মানিক ও মুসার নাম উঠে আসে।

Print Friendly and PDF