চট্টগ্রাম, বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২ , ১৬ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

লুটপাটের মালামাল জাহাজভর্তি করে নিয়ে যাচ্ছে রাশিয়া, দাবি ইউক্রেনের

প্রকাশ: ১ জুন, ২০২২ ৪:৩৯ : অপরাহ্ণ

ইউক্রেনে আগ্রাসন চালানোর মধ্যেই রাশিয়ার বিরুদ্ধে উঠেছে লুটপাটের অভিযোগ। রুশ বাহিনীর দখলে যাওয়ার পর, ইউক্রেনের বন্দরনগরী মারিওপোল থেকে প্রথমবার ধাতব পণ্যবাহী একটি জাহাজ রাশিয়ার উদ্দেশে রওনা হয়েছে। ইউক্রেনের অভিযোগ, মারিওপোল থেকে লুটপাট চালিয়ে পণ্য নিয়ে যাচ্ছে রাশিয়া। এদিকে, পশ্চিমা গণমাধ্যমের দাবি- ইউক্রেন থেকে শস্য চুরি করছে রাশিয়া। খবর রয়টার্সের।

ইউক্রেনের মারিওপোল বন্দর ছেড়ে যাওয়া ধাতব পাত বোঝাই একটি কার্গো জাহাজকে ঘিরে তৈরি হয়েছে বিতর্ক। দেশটিতে রুশ আগ্রাসন শুরু হওয়ার পর বন্দর ছেড়ে যাওয়া প্রথম জাহাজ এটিই। জাহাজটিতে রয়েছে আড়াই হাজার টনেরও বেশি ধাতব পাত। ইউক্রেনের অভিযোগ, তাদের বিভিন্ন শহর দখলের পর লুটপাট চালিয়েছে রুশ বাহিনী। এখন জাহাজ বোঝাই করে সেসব পণ্যই নিজ দেশে নিয়ে যাচ্ছে তারা।

রাশিয়ার বিরুদ্ধে উঠেছে ইউক্রেনের খাদ্যশস্য চুরির অভিযোগও। পশ্চিমা বিভিন্ন গণমাধ্যমের দাবি, রুশ পতাকাবাহী জাহাজ ইউক্রেন থেকে খাদ্যশস্য নিয়ে সিরিয়ায় পাড়ি জমিয়েছে। প্রমাণ হিসেবে প্রকাশ করা হয়েছে স্যাটেলাইট চিত্র।

ইউক্রেনের রাজনীতিবিদ ল্যুদমিলা দেনিসোভা জানান, ইউক্রেনের অস্থায়ীভাবে দখলকৃত অঞ্চলগুলোতে লুটপাট অব্যাহত রয়েছে। শস্য চুরির পর দখলকারী আগ্রাসী বাহিনী মারিওপোল থেকে ধাতব পণ্য লুটে নিতে শুরু করেছে।

আজভ সাগর তীরের মারিওপোল পূর্ণ দখলে নেয়ার পর থেকেই বন্দরে তৎপর রাশিয়া। এরইমধ্যে সেখানে অবস্থানরত বেশ কয়েকটি জাহাজ দখল করেছে রুশ সমর্থিত বিচ্ছিন্নতাবাদীরা।

পিপলস রিপাবলিক অব দোনেৎস্কের প্রধান ডেনিস পুশিলিন বলেন, এই জাহাজগুলো পিপলস রিপাবলিক অব দোনেৎস্কের নিয়ন্ত্রণে থাকবে। এগুলোর নাম পরিবর্তন করা হতে পারে। তবে এ বিষয়ে এখনও আমরা সিদ্ধান্ত নেইনি। কিন্তু এসব জাহাজে কোন পতাকা থাকবে সেটা কারও অজানা নয়।

আগ্রাসন শুরুর পর থেকেই মারিওপোলে নজর ছিল রাশিয়ার। মার্চের শুরুতেই শহরটি ঘিরে ফেলে রুশ বাহিনী। তবে বিশাল ইস্পাত কারখানায় প্রতিরোধ গড়ে তোলে ইউক্রেনের সেনারা। চলতি মাসে তারা আত্মসমর্পণ করতে বাধ্য হলে মারিওপোল পূর্ণ দখলে নেয় রাশিয়া।

Print Friendly and PDF