চট্টগ্রাম, সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২ , ১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ডলারের বিপরীতে আরও কমল টাকার মান

প্রকাশ: ৩০ মে, ২০২২ ১২:১৬ : অপরাহ্ণ

ফের যুক্তরাষ্ট্রের ডলারের বিপরীতে টাকার মান কমালো বাংলাদেশ ব্যাংক। প্রতি ডলারের বিনিময় মূল্য ১ টাকা ১০ পয়সা বাড়ানো হয়েছে। ফলে এক মার্কিন মুদ্রা পেতে এখন ৮৯ টাকা গুণতে হবে।

আজ রোববার (২৯ মে) কেন্দ্রীয় ব্যাংকের মুখপাত্র ও নির্বাহী পরিচালক মো. সিরাজুল ইসলাম এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেন, এ নিয়ে চলতি মাসে চারবার ডলারের বিপরীতে টাকার মান কমল। আগামীকাল সোমবার থেকে আন্তঃব্যাংক লেনদেনে ৮৯ টাকার এ হার কার্যকর হবে।

গতকাল শনিবার পর্যন্ত প্রতি ডলার বিনিময় হয় ৮৭ টাকা ৯০ পয়সায়। এর আগে গত ১৬ মে ডলারের বিপরীতে ৮৭ টাকা ৫০ পয়সা নির্ধারণ করে বাংলাদেশ ব্যাংক। গত ৯ মে ডলারের বিনিময় মূল্য ২৫ পয়সা বাড়ানো হয়। এতে প্রতি ডলারের বিনিময় হার দাঁড়ায় ৮৭ টাকা ২৫ পয়সা।

সম্প্রতি এক বৈঠকে একই দরে ডলার কেনাবেচা করতে সম্মত হয় দেশের ব্যাংকগুলো। বাজারে অস্থিরতা কাটাতে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পরামর্শে এ সিদ্ধান্তে উপনীত হয় তারা।

সবশেষ আন্তঃব্যাংক মুদ্রাবাজারে প্রতি ডলারে ৮৭ টাকা ৯০ পয়সা বেঁধে দেয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক। তবে এ রেট মানছে না বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো। যে যার মতো করে ডলারে দাম নিচ্ছে।
এতে বাজারে অস্থিরতা সৃষ্টি হয়েছে। মূলত তা কাটাতেই দেশের সব এক্সচেঞ্জ হাউজে এক রেটে ডলার বিক্রি হবে।

গত বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ ব্যাংকে এক ত্রিপক্ষীয় বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়। এতে কেন্দ্রীয় ব্যাংক, বাংলাদেশ ফরেইন এক্সচেঞ্জ ডিলারস অ্যাসোসিয়েশন (বাফেদা) এবং অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স বাংলাদেশের (এবিবি) প্রতিনিধিরা অংশ নেন।

দেশের বর্তমান মুদ্রাবাজারে ডলারের ব্যাপক সংকট দেখা দিয়েছে। ফলে বিলাসবহুল পণ্য আমদানি নিরুৎসাহিত করা হচ্ছে। একই সঙ্গে রপ্তানি আয় ও রেমিট্যান্সে মুদ্রা বিনিময় হারের সুবিধা দিতে ডলারের দাম বাড়ানো হয়েছে।

করোনা ধাক্কা কাটিয়ে অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড বাড়ায় আমদানি বেড়েছে। পাশাপাশি নিত্যপণ্যের দামও বেড়েছে। সব মিলিয়ে আমদানি ব্যয় বেড়েছে। তাই এখন বাজারে ডলারের চাহিদা বেশি। সেই সঙ্গে আমদানির তুলনায় রপ্তানি না বাড়ায় এবং রেমিট্যান্স কমায় এর জোগান কমেছে। ফলে মার্কিন মুদ্রার দাম বাড়ছে।

Print Friendly and PDF