চট্টগ্রাম, বুধবার, ৬ জুলাই ২০২২ , ২২শে আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ভারতে ‘৭৮৬’ লেখা থাকায় মুসলিম যুবকের হাত কেটে নিলো স্থানীয়রা

প্রকাশ: ২৬ মে, ২০২২ ১১:২৮ : পূর্বাহ্ণ

ভারতের উত্তর প্রদেশে এক যুবকের হাতে ‘৭৮৬’ লেখা ছিল। উপমহাদেশীয় মুসলমানরা পবিত্র হিসেবে গণ্য করে সংখ্যাটিকে। আর ওই ৭৮৬ লেখা থাকায় তার হাতটাই কেটে নিয়েছে স্থানীয় হিন্দুরা।

এনডিটিভির প্রতিবেদন অনুযায়ী, উত্তর প্রদেশের বাসিন্দা ইখলাখ সলমনির সঙ্গে ঘটেছে এমন মর্মান্তিক ঘটনা।

খবরে বলা হয়, ২০২০ সালে চাকরি নিয়ে হরিয়ানার পানিপথে বসবাস শুরু করেন ইখলাখ। তার হাতে একটা ট্যাটু ছিল। যার মূল বিষয় ৭৮৬, অনেকে যাকে ইসলাম ধর্মের পবিত্র সংখ্যা হিসেবে গণ্য করে। সেটি লেখা থাকায় কিছু দিন আগে তার হাত কেটে নেয়া হয় বলে পুলিশে অভিযোগ করেন তিনি।

আবার বিষয়টিকে আড়াল করতে উগ্র হিন্দুরা ইখলাখের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ তোলে।

ওই অভিযোগে দাবি করা হয়, গেল বছরের আগস্ট মাসে তিনি নাকি এক নাবালককে যৌন হেনস্তা করেন। পরে ঘটনাস্থল থেকে পালানোর সময় রেললাইনে পড়ে গিয়েছিলেন তিনি। ওই সময় তার হাত ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

এদিকে অভিযোগ, পাল্টা অভিযোগ পেয়ে তদন্তে নামে পুলিশ। শেষ পর্যন্ত আদালত উঠে ঘটনাটি।

কিন্তু আদালতে ইখলাখের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ টেকেনি। তার বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া চার্জশিট নিয়ে একাধিক প্রশ্ন তুলেন বিচারপতি। ইখলাখের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার কোনো প্রমাণই মেলেনি। শুধুমাত্র ওই নাবালক, তার বাবা ও আত্মীয়র বয়ানের উপর ভিত্তি করে ওই যুবকের কোনো দোষই প্রমাণিত করা যায়নি।

আগস্ট মাসে যৌন হেনস্তা করা হলেও এতদিন বাদে কেন অভিযোগ দায়ের হলো, তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেন বিচারপতি। এ প্রসঙ্গে সরকারি আইনজীবীর ব্যাখ্যাও সন্তোষজনক নয় বলে জানান তিনি। স্বাভাবিকভাবে আদালতের রায়ে চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে।

প্রসঙ্গত, হিন্দু অধ্যুষিত ভারতে ক্ষমতাসীন বিজেপির প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ মদদে মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে উগ্র হিন্দুত্ব বা ব্রাহ্মণ্যবাদীরা। তারা প্রতিনিয়ত নিপীড়ন চালায় সংখ্যালঘু মুসলিম সম্প্রদায়ের ওপর।

Print Friendly and PDF